দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা: এজাদ‍্যোঃ কিম্? উপেতঃ

স্বপ্রসঙ্গ দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা) এজাদ‍্যোঃ কিম্? উপেতঃ।

স্বপ্রসঙ্গ দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা)- এজাদ‍্যোঃ কিম্? উপেতঃ


উৎস:- আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত রচিত সিদ্ধান্থকৌমুদী গ্রন্থের পূর্বার্ধে আলোচ‍্য দীক্ষিত বৃত্তিটি বিদ‍্যমান।

প্রসঙ্গ:- আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত এত‍্যেধত‍্যূঠসু সূত্রের বৃত্তিতে বলেছেন – এজাদ‍্যোঃ কিম্? উপেতঃ।

বৃত্তিটির অর্থ:- এজাদি বলার কারণ উপেতঃ।

স্বপ্রসঙ্গ দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা)- এজাদ‍্যোঃ কিম্? উপেতঃ

এত‍্যেধত‍্যূঠসু- সূত্রটিকে বিশ্লেষণ করে এতি + এধতি + ঊঠস্ পদসমূহ পাওয়া যায়। গত্যর্থক ইণ্ ধাতুর একারাদি রূপ বোঝাতে এতি ধাতুর প্রয়োগ এবং বৃদ্ধি অর্থক এধ্ ধাতুর একারাদি রূপকে বোঝাতে এধতে ধাতুর প্রয়োগ হয়েছে সূত্রে। আৎ, বৃদ্ধিঃ, এটি পদের অনুবৃত্তির দ্বারা সূত্রার্থ হয়, অবর্ণের পর যদি ইণ্ ধাতু বা এধ্ ধাতুর এমন পদ থাকে, যার আদিতে একার আছে, অথবা যদি ঊঠ্ (সম্প্রসারণ) থাকে, তবে পূর্ব ও পরবর্ণের স্থানে বৃদ্ধি একাদেশ হবে।

যেমন- উপ্ + এতি অবস্থায় এচ্ আদিতে আছে এমন ইণ্ ধাতু পরে থাকায় এবং পূর্বে অবর্ণ থাকায় বৃদ্ধিরাদৈচ্ এবং স্থানেঅন্তরতমঃ সূত্রের সহায়তায় এত‍্যেধত‍্যূঠসু সূত্র দ্বারা বৃদ্ধি বর্ণ ঐকার আদেশ হওয়ায় উপৈতি পদ সিদ্ধ হয়। অনুরূপভাবে উন+ এধতে = উপৈধতে এবং প্রষ্ঠ + ঊহঃ = প্রষ্ঠৌহঃ পদের নিষ্পন্ন হয়।

কিন্তু প্রশ্ন ওঠে যে, উপৈতি এবং উপৈধতে এই দুইস্থলে বৃদ্ধিরেচি সূত্রের দ্বারাই তো বৃদ্ধি হয়ে যেত। তবে বর্তমান সূত্রে এত‍্যেধতি – কেন গ্রহণ করা হয়েছে? কেবল ঊহ থাকুক। ফলে এত‍্যেধতি অংশ ব‍্যর্থ হয়ে জ্ঞাপন করলে যে, ধাতুর এজাদি মেনে যদি বৃদ্ধি একাদেশ হয়, তবে এজাদি ইণ্ এবং এজাদি মেনে যদি বৃদ্ধি একাদেশ হয়, তবে এজাদি ইণ্ এবং এজাদি মেনে যদি বৃদ্ধি একাদেশ হয়, তবে এজাদি ইণ্ এবং এজাদি এধ্ ধাতুরই কেবল হবে, অন‍্য এজাদি ধাতুর হবে না।

বৃত্তিতে এজাদি বলার জন‍্য উপ+ ইতঃ এখানে ইণ্ ধাতু অবর্ণের পরে থাকা সত্ত্বেও এজাদি না থাকায় বৃদ্ধি হতে পারল না। ফলে আদেঙ্ গুণঃ সূত্র দ্বারা গুন একাদেশ করে উপেতঃ পদ সিদ্ধ হল। প্র + ইদিধৎ এখানে এধ্ ধাতু পরে আছে। কিন্তু এজাদি না থাকায় বৃদ্ধি একাদেশ হল না। আদগুণঃ সূত্র দ্বারা গুণ একাদেশ হয়ে প্রেদিধৎ পদ হয়।

Leave a Comment