সিদ্ধান্তক‍ৌমুদী: পরিভাষা ব‍্যাখ‍্যা – পরনিত‍্যান্তরঙ্গাপবাদানামুত্তরোত্তরং বলীয়

সিদ্ধান্তক‍ৌমুদী হতে পরিভাষা ব‍্যাখ‍্যা পরনিত‍্যান্তরঙ্গাপবাদানামুত্তরোত্তরং বলীয়।

সিদ্ধান্তক‍ৌমুদী হতে পরিভাষা ব‍্যাখ‍্যা – পরনিত‍্যান্তরঙ্গাপবাদানামুত্তরোত্তরং বলীয়


উৎস:- আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত বিরচিত সিদ্ধান্তকৌমুদী গ্রন্থের পূর্বার্ধে আলোচ‍্য দীক্ষিত পরিভাষাটি বিদ‍্যমান।

প্রসঙ্গ:– সিদ্ধান্তকৌমুদীতে পরিভাষা প্রকরণের শেষে দীক্ষিত তিনটি বিশেষ পরিভাষার উল্লেখ করেছেন। এই পরিভাষাগুলি পাণিনীর সূত্র নয়। তবে এগুলি মর্যাদা সূত্রের সমতুল‍্য বলা চলে। এগুলি সাধারণত ন‍্যায়সিদ্ধ বা জ্ঞাপকসিদ্ধ। দীক্ষিত এখানে যে তিনটি পরিভাষার উল্লেখ করেছেন তাদের প্রত‍্যেকটি সূত্রের বলাবল সংক্রান্ত। বিশেষ বিশেষ পরিস্থিতিতে কোন্ সূত্র কোন্ সূত্র অপেক্ষা বলবান হবে সে বিষয়ে এই পরিভাষাগুলিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই তিনটি পরিভাষার মধ‍্যে এটি একটি।

বৃত্তিটির অর্থ:– পর, নিত‍্য, অন্তরঙ্গ ও অপবাদ এদের পূর্ব পূর্বের অপেক্ষায় পর পরটি অধিক বলবান।

পরিভাষা ব‍্যাখ‍্যা – পরনিত‍্যান্তরঙ্গাপবাদানামুত্তরোত্তরং বলীয়

বিপ্রতিষেধে পরং কার্য‍্যম্ সূত্রটি দুটি সূত্রের বিরোধ ঘটলে পূর্ববর্তী সূত্রবোধিত কার্য‍্যের অপেক্ষায় পরবর্তী সূত্রবোধিত কার্য‍্য যে অধিক বলবান হয় তা উপাদান করে। যেমন- তস্মিন্নিতি নির্দিষ্টে পূর্বস‍্য এবং তস্মাদিত‍্যুত্তরস‍্য – এই দুই পরিভাষার বিরোধে পরসূত্র তস্মাদি- অনুযায়ী কাজ করা হয়। তবে সব বিরোধের মূল তত সরল নয়। তারজন‍্য সমাধানও হয় নানাপ্রকার।

আমাদের আলোচ‍্য পরনিত‍্য…..ইত‍্যাদি পরিভাষাটি পূর্বপর, নিত‍্য -অনিত‍্য, অন্থরঙ্গ -বহিরঙ্গ, উৎসর্গ-অপবাদ এই চারটি বিরোধের প্রসঙ্গ তুলে সমাধান দিয়েছে, পরিভাষাটির অর্থ হল পূর্ব অপেক্ষা পর, পর অপেক্ষা নিত‍্য পর ও নিত‍্য অপেক্ষা অন্তরঙ্গ এবং পর,নিত‍্য, অন্তরঙ্গ অপেক্ষা অপবাদ সূত্র বলীয়ান্ গণ‍্য হয়।

পরবিধি অপেক্ষা নিত‍্যবিধি বলীয়ান্ হয়। তার কারণ নিত‍্যবিধি আবশ‍্যিক। পরিবিধি অপেক্ষা অন্তরঙ্গ বিধির বলীয়ানের উদাহরণ -উভয়+জস্।

পরিবিধি অপেক্ষা অপবাদবিধির বলবত্তার উদাহরণ দধ্না। নিত‍্যবিধি অপেক্ষা অন্তরঙ্গবিধি যে বলীয়ান্ তার দৃষ্টান্ত  হিসাবে গ্রামণী + ক্লীবলিঙ্গ প্রথমা দ্বিবচন > গ্রামণিনী পদটি উল্লেখযোগ‍্য। অন্তরঙ্গের অপেক্ষায় অপবাদবিধির বলবত্তার উদাহরণ দৈত‍্যারিঃ শ্রীশঃ ইত্যাদি।

Leave a Comment