দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা: সপাদসপ্তাধ‍্যায়ীং প্রতি ত্রিপাদ‍্যসিদ্ধা

স্বপ্রসঙ্গ দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা) সপাদসপ্তাধ‍্যায়ীং প্রতি ত্রিপাদ‍্যসিদ্ধা।

স্বপ্রসঙ্গ দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা) সপাদসপ্তাধ‍্যায়ীং প্রতি ত্রিপাদ‍্যসিদ্ধা।


উৎস:– আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত বিরচিত সিদ্ধান্তকৌমুদী গ্রন্থের পূর্বার্ধে আলোচ‍্য দীক্ষিত বচনটি বিদমান।

প্রসঙ্গ:- আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত পূর্বত্রাসিদ্ধং সূত্রের বৃত্তিতে বলেছেন – সমাদসপ্তাধ‍্যায়ীং প্রতি ত্রিপাদ‍্যসিদ্ধা ‘।

বৃত্তিটির অর্থ:- সপাদ সপ্তাধ‍্যায়ীর প্রতি ত্রিপাদী শাস্ত্র অসিদ্ধ হয়।

দীক্ষিত ব‍্যাখ‍্যা (বৃত্তি ব‍্যাখ‍্যা) সপাদসপ্তাধ‍্যায়ীং প্রতি ত্রিপাদ‍্যসিদ্ধা

অষ্ট‍্যাধায়ীতে আটটি অধ‍্যায় আছে, প্রত‍্যেকে অধ‍্যায়ে চারটি করে পাদ আছে। এই সূত্রটি সপ্তমাধ‍্যায়ের দ্বিতীয় পাদের প্রথম সূত্র। এই অবস্থান থেকেই পূর্ব ও পর ধরতে হবে। সুতরাং অষ্ট‍্যাধায়ীকে দুভাগে বিভক্ত করে একটি সপাদ সপ্তাধ‍্যায়ীরূপে ও অবশিষ্ট অংশটুকু ত্রিপাদীরূপে ব‍্যবহৃত হয়ে থাকে। সপাদ সপ্তাধ‍্যায়ী অর্থাৎ সাত অধ‍্যায় একপাদ। ত্রিপাদী অর্থাৎ তিনটি পাদ, অষ্ট‍্যামাধ‍্যায়ের দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থপাদ। সূত্রের অর্থ হল সপাদ সপ্ত‍াধ‍্যায়ীস্থ সূত্রের দৃষ্টিতে ত্রিপাদীস্থ সূত্র অসিদ্ধ অর্থাৎ অপ্রবৃত্ত হয়।
যেমন- হরেইহ এই স্থিতিতে এচোঅয়বায়াবঃ সূত্র দ্বারা একার স্থানে অয়্ আদেশ করে হল হরয়ইহ, তারপর লোপঃ শাকলস‍্য- সূত্রে য কারের লোপ করে হয় হরইহ। এবার অকারের পর ইকার থাকায় আদ্ গুনঃ সূত্রে গুন একাদেশের প্রাপ্তি হল। কিন্তু পূর্বত্রাসিদ্ধম্ নিয়মানুসারে গুনবিধায়ক সূত্রের প্রবৃত্তি হবে না। কারন এটি ষষ্ঠ অধ‍্যায়ের সূত্র। অর্থাৎ সপাদ সপ্তাধ‍্যায়ীর অন্তর্গত। এর দৃষ্টিতে অষ্টম অধ‍্যায়ের তৃতীয়পাদে অর্থাৎ ত্রিপাদীতে অবস্থিত লোপ বিধায়ক সূত্রটি অসিদ্ধ। ফলে গুন হবার প্রসঙ্গ নেই। লোপরূপ আদেশকে নিমিত্ত করে আদগুনঃ সূত্রের প্রাপ্তি ছিল, কিন্তু তার প্রতিষেধ হল। এক্ষেত্রে লোপরূপ আদেশের পরেই গুনের প্রাপ্তি হয়ে থাকে, কিন্তু তা হয় না।

Leave a Comment