সিদ্ধান্তকৌমুদী: স্বং রূপং শব্দস‍্যাশব্দসংজ্ঞা

সিদ্ধান্তকৌমুদী: স্বং রূপং শব্দস‍্যাশব্দসংজ্ঞা

সিদ্ধান্তকৌমুদী – স্বং রূপং শব্দস‍্যাশব্দসংজ্ঞা


উৎস:- আচার্য ভট্টোজি দীক্ষিত সিদ্ধান্তকৌমুদী গ্রন্থের পূর্বার্ধে এই পাণিনীয় সূত্রটির আলোচনা করেছেন।

বৃত্তি:- শব্দস‍্য স্বংরূপং সংজ্ঞি, শব্দশাস্ত্রে যা সংজ্ঞা তাং বিণা।

সূত্রার্থ:- শব্দশাস্ত্রের সংজ্ঞা ব‍্যতীত অন‍্যত্র শব্দের নিজের রূপ সংজ্ঞী হয়।

স্বং রূপং শব্দস‍্যাশব্দসংজ্ঞা সূত্রব‍্যাখ‍্যা:-

সূত্রের দুটি অংশ স্বং রূপং শব্দস‍্য এবং অশব্দসংজ্ঞা। সংজ্ঞী কথার অর্থ বোধ‍্য হয়? লৌকিক ব‍্যবহারে এক্ষেত্রে বাহ‍্য অর্থ বা বস্তুই জ্ঞানের বিষয় হ
য়। যেমন – অগ্নিমানায় বললে অগ্নি শব্দের বাচ‍্য যে উষ্ণ পদার্থবিশেষ, তাকেই লোক আনয়ন করে। কিন্তু ব‍্যাকরণে তা হয়না। ব‍্যাকরণে শব্দের দ্বারা তার স্বীয় রূপের অর্থাৎ বিশিষ্ট আনুপূর্বী যে বর্ণবিশিষ্ট, সেগুলিরই বোধ হবে। যেমন – অগ্নি বললে বুঝতে হে নির্দিষ্ট ক্রমে উচ্চারিত অ-গ্-ন্-ই বর্ণসমষ্টিকে। সোজা কথায় ব‍্যাকরণে শব্দের দ্বারা শব্দের গ্রহণ হয়। যেমন- অগ্নের্ঢক্ সূত্র অনুসারে অগ্নি শব্দের উত্তর ঢক্ প্রত‍্যয় হয় এবং আগ্নেয় শব্দটি সিদ্ধ হয়। আবার ‘রাজশ্বশুরাদ যৎ ‘ সূত্রানুসারে রাজন্ ও শ্বশুর -এই দুটি শব্দের উত্তর যৎ প্রত‍্যয় করে রাজন‍্য ও শ্বশুর্য -এই দুটি শব্দ সিদ্ধ হয়।

Leave a Comment