মনুসংহিতা শ্লোক (রাজধর্মঃ) সংস্কৃত বাখ্যা -4

মনুসংহিতা শ্লোক (রাজধর্মঃ) সংস্কৃত বাখ্যা – যস‍্য প্রসাদে পদ্মা শ্রীবিজয়শ্চ পরাক্রমে । মৃত‍্যুশ্চ বসতি ক্রোধে সর্বতেজোময়ো হি সঃ। Manu Samhita Slokas Sanskrit Explanation

মনুসংহিতা শ্লোক সংস্কৃত বাখ্যা -4

যস‍্য প্রসাদে পদ্মা শ্রীবিজয়শ্চ পরাক্রমে।
মৃত‍্যুশ্চ বসতি ক্রোধে সর্বতেজোময়ো হি সঃ।

উৎসঃ-

আচার্যস‍্য মনোঃ প্রণীতায়াঃ মনুসংহিতায়াঃ রাজধর্মঃ নাম সপ্তমাধ‍্যায়াৎ অয়ং শ্লোকঃ সংকলিতঃ।

প্রসঙ্গঃ-

অস্মিন্ শ্লোকে ঋষিমনুঃ সর্বশক্তিমতঃ রাজ্ঞঃ স্বরূপং বর্ণ‍্যতে।

ব‍্যাখ‍্যাঃ-

ঈশ্বরেন বিশ্বচরাচরস‍্য রক্ষার্থম্ ইন্দ্রবায়ুসূর্যাদীনাং অষ্ট দেবানাং সারাংশেন রাজা সৃষ্টঃ। অস্মিন্ শ্লোকে ভগবান্ মনু রাজধর্মঃ পর্যালোচনাবসরে প্রসঙ্গক্রমে রাজ্ঞঃ অপ্রতিহতং প্রভাবম্, তেজস্বিতা,অসাধারনং বলম্, অপরিসীমঃ পরাক্রমঃ অপরিমেয়ং সামর্থ‍্যং চ বর্ণ‍্যতে। সর্বতেজময়ঃ রাজা প্রয়োজনবশাৎ বিধিবং রূপং ধারয়তি। যস‍্য প্রসাদে স মহতী শ্রীঃ সমৃদ্ধিঃ ভবতি। যতঃ রাজ্ঞঃ পরাক্রমেন শক্রবঃ বিজিতা ভবন্তি। পুনঃ রাজা যস্মৈ ক্রুধ‍্যতি,তস‍্য মৃত‍্যুং অবশ‍্যমেব ভবতি। যতঃ ঋষিনা প্রাগেব কথিতম্-“কুলং দহতি রাজাগ্নিঃ সপশুদ্রব‍্যসঞ্চয়ম্।” অতঃ ধনার্থিনাং জীবনীর্থানাং জিগীষুণাং তেষাং সর্বদা রাজ্ঞঃ সন্তোষঃ সম্পাদনীয়ঃ।

মনুসংহিতা শ্লোক বাংলা বাখ্যা -4

যস‍্য প্রসাদে পদ্মা শ্রীর্বিজয়শ্চ পরাক্রমে।
মৃত‍্যুশ্চ বসতি ক্রোধে সর্বতেজোময়ো হি সঃ।।

অনুবাদ:- যাঁর অনুগ্রহে বিপুল সম্পাদলাভ হয়, যাঁর বীরত্বে জয়লাভের হয়, যাঁর ক্রোধে মৃত‍্যু বাস করে, তিনি প্রকৃতই সর্বতেজোময়।

উৎস:- আলোচ‍্য শ্লোকটি সুপ্রসিদ্ধ  ধর্মশাস্ত্রকার ভগবান মনু প্রণীত মনুসংহিতার রাজধর্ম নামক সপ্তম অধ‍্যায়ের অন্তর্গত।

প্রসঙ্গ:- রাজশক্তির মধ‍্যে যে দৈবতেজ লুকিয়ে রয়েছে সেই কথা বর্ণনাকালে মনু উদ্ধৃত শ্লোকের অবতারনা করেছেন।

রাজা দেবতার সারভূত অংশ থেকে সৃষ্টি হওয়ায় তিনি সর্বশক্তিমান। তাঁর তেজস্বীতা ও প্রভাব অপরিসীম। তাঁর এই অসীম তেজস্বীতার জন‍্য তিনি যার প্রতি অনুগ্রহ করেন তিনি প্রভূত ঐশ্বর্যের অধিকারী হন। সেজন‍্য বলা হয়েছে রাজার অনুগ্রহে বাস করেন লক্ষ্মী। সুতরাং উন্নতকামী ব‍্যাক্তির রাজার অনুগ্রহ লাভের চেষ্টা করা উচিত। এ প্রসঙ্গে মনু বলেছেন- ‘যস‍্য প্রসাদে পদ্মা শ্রীর্বিজয়শ্চ পরাক্রমে।’ রাজা যে কেবল ধন সম্পত্তি দেন তা নয়, যে লোক রাজার আরাধনা করে, রাজা সন্তুষ্ট হয়ে তার যত শত্রু আছে সবাইকে তিনি পরাক্রম প্রকাশ করে ধ্বংস করে দেন। অতএব, শত্রু বিনাশ করা যার অভিপ্রায় তাঁর পক্ষে ঠিক ঠিক ভাবে রাজার সন্তুষ্টি বিধান করা উচিত।

আলোচ‍্য শ্লোকটিতে অনুষ্টুপ্ ছন্দ পরিলক্ষিত হয়েছে।

মনুসংহিতার অন্যান্য প্রশ্ন গুলি পড়ুন-

Leave a Comment