উচ্চ মাধ্যমিক দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প | Sanskrit Project Class 12

উচ্চ মাধ্যমিক দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প –প্রকল্পের শিরোনাম সংস্কৃত মনীষায় বিজ্ঞান চেতনা Project। higher secondary twelfth class sanskrit project work.সংস্কৃত মনীষায় বিজ্ঞান চেতনা project

Table of Contents

উচ্চ মাধ্যমিক দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প(Sanskrit Project Class 12) – সংস্কৃত মনীষায় বিজ্ঞান চেতনা

higher secondary twelfth 12 class Sanskrit project work

দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-1)

কৃতজ্ঞতা স্বীকার

পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদপ্রবর্তিত পাঠক্রমে দ্বাদশ শ্রেণীর চূড়ন্ত পরীক্ষার জন্য প্রকল্পনির্বাচিত হয়েছে। পাঠক্রমে থাকা পকল্পগুলির মধ্যে বৈজ্ঞানিক সাহিত্য রূপে জ্যোতির্বিদ্যা ও গণিত আমার ভালো লাগে সামান্য অভিজ্ঞতার ওপর ভিত্তি করে এবং শিক্ষক মহাশয়েরসঙ্গে পরামর্শ করে প্রকল্পের বিষয় স্থির করে; আমার প্রকল্পের শিরোনাম সংস্কৃত মনীষায় বিজ্ঞান চেতনা

আমার প্রিয় শিক্ষক ………….(শিক্ষকের নাম) ………….. কে .আমি হার্দিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করি । তিনি এই পরিকল্পনা রূপায়নের ক্ষেত্রে যথেষ্ট সাহায্য করেছেন এবং প্রজেক্ট তৈরি ও তথ্য সংগ্রহ সহ বহু মূল্যবান পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। এর জন্য আমি তার কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করছি।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-2)

ভূমিকা

কোন সময় কোন জনপদের সাহিত্যের উদ্ভব তা আজও অজানা । তবে একথা স্বীকার করা যায় পৃথিবীর প্রথম লিখিত সাহিত্য বেদ । বেদ নির্ভর ছিল জ্ঞান যজ্ঞের এর উপর । এই কারণে গ্রহ নক্ষত্রের অবস্থান তিথি রাশি প্রভৃতি প্রয়োজনীয়তা থেকে বেদাঙ্গ জ্যোতিষের সৃষ্টি । তবে এই জ্যোতিষ বিদ্যা দুই প্রকার ফলিত জ্যোতিষ ও গণিত জ্যোতিষ ।
ফলিত জ্যোতিষ হলো গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থানভেদে পৃথিবীর উপর তাদের প্রভাব এবং গণিত হলো তাদের হিসেব-নিকেশ । জ্যোতিষ বিদ্যা ও গণিতবিদ্যা আলাদা কোন সাহিত্য নয় এরা একে অপরের পরিপূরক । সুতরাং গণিত হলো জ্যোতিষবিদ্যার অংশবিশেষ ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-3)


প্রকল্পের বিষয়

প্রাচীন ভারতে জ্যোতির্বিদ্যা নিয়ে আলোচনায় এই প্রকল্পটির বিষয়বস্তু ।

প্রকল্পটির গুরুত্ব

বর্তমান যুগের বিভিন্ন গ্রহ নক্ষত্রের অবস্থান অর্থাৎ চন্দ্রগ্রহণ সূর্যগ্রহণ রাত্রি বিভাগ বৎসর মাস গণনা এসব প্রাচীন জ্যোতির্বিদ্যা হতে পাওয়া যায় । এমনকি ত্রিকোণমিতির সূত্র দশমিক ও শূন্যের ব্যবহার প্রাচীন সাহিত্য গুলিতে পাওয়া যায় । প্রাচীন ভারতের জ্যোতির্বিদ্যার সম্পর্কে কৌতূহল অনেকের এ কারণে প্রকল্পটির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-4)

প্রকল্পের উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য

এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো জ্যোতিষশাস্ত্র যে শুধুমাত্র হস্তরেখা বিচার এই ভ্রান্ত ধারণা দূর করা । জ্যোতিষ শাস্ত্রে গ্রহ নক্ষত্রের অবস্থান ও বিভিন্ন কাল নির্ধারণ আজ যে অনুষ্ঠিত উপস্থাপিত হবে । এছাড়া প্রাচীন ভারতের সমাজ ব্যবস্থার চিত্র সকলের মানসপটে ভেসে উঠবে । অর্থাৎ প্রকল্পের উদ্দেশ্য গুলি হল –

  • 1) প্রকল্পটির মাধ্যমে বর্তমান বিশ্বে জ্যোতিষ বিদ্যা সম্পর্কে ধারণা স্বচ্ছ হবে ।
  • 2) এই বিষয়ে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় হবে ।
  • 3) জ্যোতিষ বিদ্যা সম্পর্কে মানুষের আগ্রহ বাড়বে ।
  • 4 ) পরবর্তীকালে ছাত্রছাত্রীরা অনুপ্রাণিত হয়ে উচ্চ শিক্ষার বিষয় হিসেবে জ্যোতিষ বিদ্যা কে গ্রহণ করবে ।

দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-5)

পরিকল্পনা

জ্যোতির্বিদ্যা ও গণিতের উপর প্রকল্প রূপায়ণ করতে হলে প্রথমে আর্যভট্ট বরাহমিহির এর জীবনী জানতে হবে । এবং তারা কি কি সাহিত্য রচনা করেছে তা অনুসন্ধান করতে হবে । এছাড়া পাঠ্যপুস্তকে সাহিত্যের ইতিহাসে আর্যভট্ট বরাহমিহির এর সম্পর্কে যে সমস্ত তথ্য লিপিবদ্ধ আছে তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে আত্মস্থ করতে হবে । এছাড়া ইন্টারনেটের সাহায্য নিতে হবে ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-6)

তথ্য সংগ্রহ

আর্যভট্ট

ভারতীয় জ্যোতির্বিজ্ঞানের ইতিহাসে একটি অবিস্মরণীয় নাম আর্যভট্ট । আর্যভট্ট হলেন জ্যোতির্বিদ্যার জনক তিনি 476 খ্রিস্টাব্দে পাটলিপুত্রে জন্মগ্রহণ করেন আর্যভট্ট জ্যোতিষের উপর তিন খানা গ্রন্থ রচনা করেন ।


আর্যভট্টিয়

এই গ্রন্থে আর্য ভট্ট প্রথম প্রকাশ করেন পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘোরে । এছাড়া এই গ্রন্থে চন্দ্রগ্রহণ ও সূর্যগ্রহণ এর প্রকৃত কারণ বছর মাস দিন বিভাগ আলোচিত হয়েছে । এমনকি গণিতের অনেক নিয়ম সুন্দরভাবে সমাধান করা হয়েছে । যেমন – সুদকষা বর্গমূল ঘনমূল দ্বিঘাত সমীকরণ প্রভৃতি ।


আর্যাষ্টশতক

এই গ্রন্থে বর্ষ বিভাগ লিপ্ত আছে যেমন ১২ মাসে ১ বছর ও ৩০ দিনে ১ মাস প্রভৃতি ।


দশগীতিকা সূত্র

এই গ্রন্থের মূল বিষয়বস্তু মহাকাশ পর্যবেক্ষণ অর্থাৎ বিভিন্ন গ্রহের আবর্তন পথ আলোচিত হয়েছে ।


গণিতে আর্যভট্টের অবদান

দশমিকের ব্যবহার ও শূন্যের ব্যবহার করেন স্বয়ং আর্যভট্ট ত্রিকোণমিতির অনেক আধুনিক সূত্র আর্য ভট্ট ব্যবহার করেন । যেমন সহিন ভার সহিন প্রভৃতি । আর্য ভট্ট গ্রন্থের এর মান নির্ণয় করা আছে ।


জ্যোতির্বিদ্যার আর্যভট্টের অবদান

পৃথিবীর পরিধি আবিষ্কার । যেটা বের করেছিলেন তা প্রায় নির্ভুল সৌরজগতের সূর্য কেন্দ্রীয় বাকি অন্যান্য গ্রহ গুলি তাকে কেন্দ্র করে উপবৃত্তাকার পথে ভ্রমণ করেছে । এছাড়া চন্দ্রগ্রহণ সূর্যগ্রহণ সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা তিনি প্রথম দিয়েছিলেন ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-7)

বরাহমিহির

বরাহমিহির গুপ্তযুগে আবির্ভূত হয়েছিলেন তিনি ছিলেন একজন বিখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও গাণিতিক । তিনি বিক্রমাদিত্যের রাজসভায় অন্যতম ছিলেন তাঁর রচিত গ্রন্থ গুলি হল পঞ্চসিদ্ধান্তিকা ,বৃহৎসংহিতা বৃহজ্জাতক , লঘুজাতক প্রভৃতি ।

জ্যোতিষ বিদ্যায় বরাহমিহির এর অবদান

বরাহমিহির সূর্য ও অন্যান্য গ্রহের আবর্তন সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণ এর সময় কাল নির্ণয় পদ্ধতি আবিষ্কার করেন । এছাড়া বছরকে ৩৬৬ দিনে বিভক্ত করেন ।
অর্থাৎ তিনি প্রথমে নির্ণয় করেন সূর্যের চারদিকে পৃথিবীর ঘুরতে সময় লাগে ৩৬৫ দিন ৬ ঘন্টা ১২ মিনিট ৩০ সেকেন্ড ।

গণিত শাস্ত্রে অবদান

তিনি কয়েকটি ত্রিকোণমিতির সূত্র আবিষ্কার করেন ।

  • i) sin2 x + cos2 x =1
  • ii ) sin x = cos (x\2 – x )
  • iii ) 1 – cos 2x sin2 x2

এছাড়া আর্যভট্ট এর প্রদত্ত sin সরণি গুলি উন্নতি সাধন করে


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-8)

তথ্য বিশ্লেষণ

আর্যভট্ট বরাহমিহির এর জীবন ইতিহাস থেকে শুরু করে তাদের আবিষ্কার ও সাহিত্যের দিনগুলো খোঁজে বিভিন্ন প্রশ্ন এর মাধ্যমে উপাদান সংগ্রহ করা হয়েছে এছাড়া প্রাচীন মানচিত্র এবং সেই সময়কার ভৌগোলিক অবস্থান সংগ্রহ করা হয়েছে । এইভাবে সমস্ত তথ্য গুলি বিশ্লেষণ করে ঘটনা পরস্পর সাজানো যাবে । এমনকি তৎকালীন মানুষের ধর্ম বিশ্বাস বিশ্লেষণ করা আবশ্যক ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-9)


সিদ্ধান্ত

আর্যভট্ট ও বরাহমিহিরের সাহিত্যিক বিষয় গুলি বিশ্লেষণ করে কিংবা প্রাপ্ত উপাদানগুলি বিশ্লেষণ করে আমরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারি যে বর্তমান ভারত তথা পৃথিবীর সংস্কৃতির ধারক ও বাহক আমাদের প্রাচীন সাহিত্যে এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই । ভারতবর্ষের ছিল ধর্মীয় সংস্কৃতিক মিলনক্ষেত্র । সে যুগে বিজ্ঞান ও ধর্ম ওতপ্রোত যুক্ত ছিল ।


দ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প (Sanskrit Project Class 12) (Page-10)

প্রকল্প রূপায়ণ এর সীমাবদ্ধতা

কোন প্রকল্প রূপায়নের ক্ষেত্রে প্রাথমিক প্রয়োজন হল সেই বিষয়ের উপর যথেষ্ট জ্ঞান । এই জ্ঞান আছে আধেক তথ্যের উপর নির্ভর করে । যেহেতু আর্য ভট্ট বরাহমিহির এর উপর রচিত সাহিত্য আমাদের হাতে নেই । সেহেতু প্রকল্প রূপায়ণ সীমাবদ্ধতা রয়েছে । অর্থাৎ জ্যোতির্বিজ্ঞানের বিষয়ে অধিক তথ্য দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না ।

উপকরণ

(i) প্রকল্প রূপায়ণ খাতা (ii) কলম (iii) পেন্সিল (iv) ছুরি (v) কাঁচি (vi) রাবার (vii) আঠা (viii) চিত্র ।


একাদশ শ্রেণী সংস্কৃত

দ্বাদশ শ্রেণী সংস্কৃত

গদ্যাংশগদ্যাংশ
👉 ব্রাহ্মণচৌরপিশাচকথা👉 আর্যাবর্তবর্ণনম্
👉 দশকুমারচরিতম্👉 বনগতাগুহা
পদ্যাংশপদ্যাংশ
👉 দশাবতারস্তোত্রম্👉 গঙ্গাস্তোত্রম্ 
👉 মেঘদূতম্👉 কর্মযোগ
নাট্যাংশনাট্যাংশ
👉 ভারতবিবেকম্ 👉 বাসন্তিকস্বপ্নম্
একাদশ শ্রেণীদ্বাদশ শ্রেণী
Class XI SyllabusHS Syllabus
Class XI Question 2015HS Question 2015
Class XI Question 2016HS Question 2016
Class XI Question 2017HS Question 2017
Class XI Question 2018HS Question 2018
Class XI Question 2019HS Question 2019
2020 (NO EXAM)2020 (NO EXAM)
2021 (NO EXAM)2021 (NO EXAM)
Class XI Question 2022HS Question 2022
একাদশ শ্রেণী সাজেশনদ্বাদশ শ্রেণী সাজেশন
একাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত সাজেশন 2023HS Sanskrit Suggestion 2023
MCQ সাজেশনদ্বাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত প্রকল্প
ছোটো প্রশ্ন উত্তর সাজেশনবাংলা থেকে সংস্কৃত অনুবাদ সাজেশন
বোধ পরীক্ষণ সাজেশনসংস্কৃত প্রবন্ধ রচনা সাজেশন
ব্যাকরণ সাজেশনব্যাকরণ সাজেশন

Leave a Comment