দশাবতারস্তোত্রম্ হতে ছোট প্রশ্ন ও উত্তর

একাদশ শ্রেণীর পাঠ্যাংশ দশাবতারস্তোত্রম্ হতে ছোট প্রশ্ন ও উত্তর গুলি দেওয়া হল ।

দশাবতারস্তোত্রম্ হতে ছোট প্রশ্ন ও উত্তর

১) মূল কাব‍্য গ্রন্থের নাম – গীতগোবিন্দম্।
২) রচয়িতা- কবি জয়দেব গোস‍্যামি।
৩)কবি পরিচিতিঃ- কবি জয়দেব গোস‍্যামি পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলায় তীরবর্তী কেন্দুবিল্ব গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। কবির পিতার নাম ভোজদেব ও মাতার নাম বামাদেবী। শোনা যায় কবির স্ত্রী পদ্মাবতীর অনুপ্রেরণায় গীতগোবিন্দম্ কাব‍্যটি রচনা করেছিলেন। কবি ছিলেন বাংলার শেষ স্বাধীন রাজা লক্ষণসেনের সভাকবি। কবির আবির্ভাব কাল ছিল দ্বাদশ শতক।

৪)কাব‍্যপরিচয়ঃ- কবি জয়দেব রচিত গীতগোবিন্দম ভক্তি মৃলক গীতিকাব‍্যের অন্তর্গত। কাব‍্যটি ১২টি সর্গে বিভক্ত। কাব‍্যটির মূল বিষয়বস্তু রাধা কৃষ্ণের অপার্থীব প্রেমনীলা।
গীতগোবিন্দম কাব‍্যের প্রথম সর্গের নাম সামোদ-দামোদর। প্রথম সর্গের প্রথম ১১টি শ্লোক পাঠ‍্যসূচির অন্তর্গত। যার নাম দশাবতারস্তোত্রম।

দশাবতারস্তোত্রম্ অনুসারে ভগবান বিষ্ণু দশবতারের বর্ণনা

  • ১)মৎস অবতার(মীন)- বেদ উদ্ধার।
  • ২)কূর্ম অবতার(কচ্ছপ)- পৃথিবী ধারন।
  • ৩)বরাহ অবতার(শূকর)-ভূমন্ডল উত্তলন।
  • ৪)নৃসিংহ অবতার(নরসিংহ)-হিরণ‍্যকশিপু।
  • ৫)বামনঅবতার(ব্রাহ্মণ)-রাজা বলিকে ছলনা।
  • ৬)পরশুরাম- ক্ষত্রিয়দমন।
  • ৭)রাম- রাবনবধ।
  • ৮)বলরাম(নাঙল)- হলধর- নাঙল বর্ষন করে বাঁধ নির্মান করে মথুরা রক্ষা করা।
  • ৯)বুদ্ধ অবতার- অহিংসার বানি প্রচার।
  • ১০)কল্কি- ম্লেচ্ছ নিধন।

৬) অবতার শব্দের অর্থ কী?
উঃ- অবতরতি ইতি অবতার- অর্থাৎ সৃষ্টিকে রক্ষা করার জন‍্য এবং অধর্মকে বিনাস করার জন‍্য ভগবান শ্রী বিষ্ণু বারবার বিভিন্ন অবতারে এই পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

৭)দশাবতারস্তোত্রম- এ কোন দেবতার স্তুতি করা হয়েছে।
উঃ- ভগবান শ্রী বিষ্ণুর।

স্তোত্রম শব্দের অর্থ কী?
উঃ- স্তোত্রম শব্দের অর্থ হল- স্তুতি করা বা বন্দনা করা।

৯) ভগবান শ্রী বিষ্ণু দশ অবতারের নাম কী?
উঃ- ভগবান শ্রী বিষ্ণু দশ অবতার। যথা-
i)মৎস,ii)কূর্ম,iii)বরাহ,iv)নৃসিংহ,
v)বামন,vi)পরশুরাম,vii)রামচন্দ্র,
viii)বলরাম,ix)বুদ্ধ,x)কল্কি।

১০) গীতগোবিন্দম কি জাতীয় কাব‍্য?
উঃ- ভক্তিমূলক জাতীয় কাব‍্য।

১১) গীতগোবিন্দম কয়টি সর্গে বিভক্ত
উঃ- ১২ টি সর্গে।

১২)ভগবান বিষ্ণু কোন অবতারে পৃথিবীকে রক্ষা করেছিলেন?
উঃ- কূর্ম অবতারে।

১৩) শ্রী বিষ্ণুর তৃতীয় অবতারের নাম কি?
উঃ- বরাহ অবতার।

১৪) বহিত্র শব্দের অর্থ কী
উঃ- নৌকা।

১৫) ধৃত নরহরি’ – এখানে কে?
উঃ- এখানে নর হরি হল- নৃসিংহ অবতার ।

১৬) বিষ্ণুর শেষ অবতারের নাম কি
উঃ- কল্কি।

১৭) পদনখনীর বলতে কী বোঝায়
উঃ- শ্রী বিষ্ণুর পায়ের নখ থেকে নিঃসৃত জল।অর্থাৎ গঙ্গাকে বোঝানো হয়েছে।

১৮) শ্রী বিষ্ণুর প্রথম অবতারের নাম কী? এই অবতারে তিনি কি করেছিলেন?
উঃ- প্রথম অবতারের নাম হল- মৎস।
এই অবতারে প্রলয়কালীন সময়ে তিনি বেদসমৃহকে রক্ষা করেছিলেন।

১৯) কিণ-চক্র গরিষ্ঠে’- কথাটির অর্থ কী
উঃ- এর অর্থ হল- চাকার মতো গোল গোল চিহ্ন।

২০) কূর্ম অবতার শ্রী বিষ্ণুর কততম অবতার?
উঃ- শ্রী বিষ্ণুর দ্বিতীয় অবতার।

২১) দশনশিখরে- শব্দটির অর্থ কী
উঃ- দাঁতের উপরিভাগে।

২২) বিষ্ণুর তৃতীয় অবতার কী?
উঃ- বরাহ।

২৩) ভগবান বিষ্ণুর চতুর্থ অবতার কী? এই অবতারে তিনি কী করেছিলেন?
উঃ- চতুর্থ অবতার হল- নৃসিংহ।
এই অবতারে তিনি হিরণ‍্যকশিপুকে হত‍্যা কলেছিলেন।

২৪) ছলয়সি বিক্রমণে – এখানে বিক্রমণে শব্দের অর্থ কী?
উঃ- বিক্রমণে শব্দের অর্থ হল- পদক্ষেপে।

২৫) বলিম-অদ্ভুদ বামন- বলি ও বামনের পরিচয় দাও।
উঃ- আলোচ‍্য অংশে বলি শব্দ দ্বারা দৈত‍্য রাজ বলিকে বলা হয়।
বামন বলতে ভগবান শ্রী বিষ্ণুর পঞ্চম অবতারকে বোঝানো হয়।


২৬) ভৃগুপতি কে? এই অবতারে তিনি কী করেছিলেন?
উঃ- ভৃগুপতি হলেন ভগবান শ্রী বিষ্ণুর ষষ্ঠ অবতার পরশুরাম।
এই অবতারে অবতীর্ণ হয়ে তিনি ক্ষত্রিয়দের ধ্বংস করে। তাদের রক্তময় জলে জগৎকে স্নান করিয়ে পৃথিবীর পাপ দূর করে প্রসমিত করেছিলেন।

২৭) দিকপতি কারা?
উঃ- দশ দিকের অধীশ্বর দশজন দেবতাকে দিকপতি বলা হয়। এরা হলেন ইন্দ্র, ব্রহ্মা,কুবের, অনন্ত, পবন ঈশানি, অগ্নি,নৌবতি, যমরাজ বরুণ।

২৮) দশমুখমৌলিবলি-দশমুখ কে? মৌলি ও বলি শব্দের অর্থ কী?
উঃ- দশানন রাবনকে দশমুখ বলা হয়।
মৌলি শব্দের অর্থ হল- মস্তক।
বলি শব্দের অর্থ হল- উপহার।

২৯) যমুনার ভয়ের কারন কী?
উঃ- হলধরের হলের (লাঙলের) আঘাত যমুনার ভয়ের কারন।

৩০) শ্রুতিজাতম শব্দের অর্থ কী
উঃ- বেদসমূহ।

৩১)সদয় হৃদয় – এই বিশেষণটি কোন অবতারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য?
উঃ- সদয় হৃদয় অর্থাৎ দয়ালু হৃদয় – এই বিশেষনটি শ্রী বিষ্ণুর বুদ্ধ অবতারের ক্ষেত্রে প্রযোজ‍্য।

৩২) করবালম শব্দের অর্থ কী
উঃ-
৩৩) বিষ্ণুর দশম অবতার কোন অস্ত্রে সজ্জিত?
উঃ- ভগবান শ্রী বিষ্ণুর দশম অবতার কল্কি তরবারি অস্ত্র ধারণ করে সজ্জিত।

৩৪) ভবসারম শব্দের অর্থ কী? ভবসারম কে?
উঃ- ভবসারম শব্দের অর্থ- জগতের প্রধান। ভবসারম হলেন ভগবান শ্রী বিষ্ণু।


৩৫) কোন অবতারে ভগবান শ্রী বিষ্ণু ক্ষত্রিয় বংশ ধ্বংস করেছিলেন?
উঃ- ভৃগুপতি।


৩৬)কীভাবে বেদ সমূহ রক্ষা পেয়েছিল?
উঃ- প্রলয়কালীন সময়ে তিনি মৎসরূপ ধারন করে বেদসমূহকে রক্ষা করেন।


৩৭) শ্রুতিজাতম শব্দের অর্থ কী?
উঃ- শ্রুতিজাতম শব্দের অর্থ হল- বেদসমূহকে।


৩৮)ভগবান বুদ্ধ কেন বেদের নিন্দা করেছিলেন?
উঃ- কারন- বৈদিক যজ্ঞের নিয়ম অনুসারে পশু বধ দেওয়ার জন‍্য নিন্দা করেছেন।


৩৯) বিষ্ণুর বামন অবতার কীভাবে বলিরাজকে ছলনা করেছিলেন?
উঃ- ভগবান শ্রী বিষ্ণু বামন অবতার ধারন করে। বলিকে তিন পদক্ষেপে ভূমি দান হিসাবে চেয়ে তাকে ছলনা করেছিলেন।


৪০) ভগবান শ্রী বিষ্ণুর ষষ্ঠ অবতারের নাম কী?
উঃ- পরশুরাম।


৪১) কল্কি অবতারের তরবারিকে কার সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে?
উঃ- ধূমকেতুর সঙ্গে।


৪২) স্নপয়সি শব্দের অর্থ কী?
উঃ- স্নান করিয়েছে বা ধৌত করেছে।


৪৩) ভৃঙ্গম শব্দের অর্থ কী?
উঃ- ভ্রমণ।


৪৪) ভৃঙ্গম পদ দ্বারা কাকে উদ্দিষ্ট করা হয়েছে?
উঃ- হিরণ‍্যকশিপুকে।


৪৫) তিষ্ঠতি তব পৃষ্ঠে – কোন অবতারের কথা বলা হয়েছে? পৃষ্ঠে কী ধারন করেছিল? এরূপ ধারনের ফলে তার পৃষ্ঠে কী হয়েছিল?
উঃ- কূর্ম অবতার।
পৃথিবী ধারন করেছিল।
এর ফলে তার পৃষ্ঠে চক্রচিহ্ন অঙ্কিত হয়েছিল।


৪৬) বসতি দশনশিখরে ধরনীতবলগ্না- কোন অবতারের কথা বলা হয়েছে? কার দশনশিখরের কথা বলা হয়েছে? দশনশিখরে কে লগ্ন হয়ে আছে? শশিনী শব্দের অর্থ কী?
উঃ- বরাহ অবতার।
শূকরের কথা বলা হয়েছে।
পৃথিবী লঙ্গ হয়েছে।
শশিনি শব্দের অর্থ চন্দ্র।

দশাবতারস্তোত্রম্ পদ্যাংশ শ্লোকগুলির শব্দার্থ ও বঙ্গানুবাদ বাংলা

একাদশ শ্রেণীর পাঠ্যাংশ দশাবতারস্তোত্রম্ হতে বড় প্রশ্ন ও উত্তর

Leave a Comment