কিরাতার্জুনীয়ম্ মহাকাব্যের প্রথম সর্গ বনপর্ব হতে ৬নং-এর প্রশ্ন উত্তর (প্রশ্ন নং ৬ এবং ৭)

ভারবি রচিত কিরাতার্জুনীয়ম্ মহাকাব্যের প্রথম সর্গ বনপর্ব হতে ৬নং-এর প্রশ্ন উত্তর (প্রশ্ন নং ৬ নয়েন জেতুং জগতীং সুযোধন- কে কাকে সুযোধন বলেছেন?  তার বক্তব্যের মূল বিষয় কি? তার বক্তব্যটি সংক্ষেপে লেখ? এবং প্রশ্ন নং ৭ তথাপি বক্তুং ব‍্যবসায়য়ন্তি মাং নিরস্তনারীসময়াদুরাধয়- কে কার উদ্দেশ্যে কথাটি বলেছিল? সময় ও দুরাধয় পদটির অর্থ কি? বক্তা পরবর্তী কথাগুলি বলতে কেন বাধ্য হয়েছিল? )

কিরাতার্জুনীয়ম্ মহাকাব্যের প্রথম সর্গ বনপর্ব-৬নং-এর প্রশ্ন

  • প্রশ্ন নং ৬ নয়েন জেতুং জগতীং সুযোধন- কে কাকে সুযোধন বলেছেন?  তার বক্তব্যের মূল বিষয় কি? তার বক্তব্যটি সংক্ষেপে লেখ?
  • প্রশ্ন নং ৭ তথাপি বক্তুং ব‍্যবসায়য়ন্তি মাং নিরস্তনারীসময়াদুরাধয়- কে কার উদ্দেশ্যে কথাটি বলেছিল? সময় ও দুরাধয় পদটির অর্থ কি? বক্তা পরবর্তী কথাগুলি বলতে কেন বাধ্য হয়েছিল? )

প্রশ্ন নং ৬) নয়েন জেতুং জগতীং সুযোধন- কে কাকে সুযোধন বলেছেন? 


উঃ- উক্তিটির বক্তা হলেন কিরাতার্জুনীয়ম কাব্যের যুধিষ্ঠির কর্তৃক নিযুক্ত বনেচর বা কিরাত।  তিনি রাজা যুধিষ্ঠিরকে দুর্যোধনের রাজ্য শাসন পদ্ধতি বর্ণনার সময় উক্ত মন্তব্যটি করেছেন।

তার বক্তব্যের মূল বিষয় কি?

উক্ত মন্তব্যটির মূল বিষয় হলো দুর্যোধন রাজ সিংহাসনে আছেন। অপরদিকে যুধিষ্ঠিরের বনে বাস করে। তবুও দুর্যোধন বনবাসী যুধিষ্ঠিরকে নিকট পরাজয়ের আশঙ্কা করেছেন। এই কারণেই কপট পাশাখেলা দ্বারা দুর্যোধন বিজিত রাজ্য জয় করতে চেয়েছেন।

তার বক্তব্যটি সংক্ষেপে লেখ?

উক্ত উক্তিটির তাৎপর্য হলো যুধিষ্ঠির বনেবাস করে। অপর দিকে কপট পাশা খেলার দ্বারা দুর্যোধন রাজ সিংহাসন জয় করেছেন। তাই সেই কারণেই রাজ্যকে দৃঢ় প্রতিষ্ঠা করে নিজ গুন বিস্তার করে যুধিষ্ঠিরকে অতিক্রম করতে চেয়ে ছিলেন। কেননা উন্তত কামি ব্যক্তিগণ নীচ লোকেদের  সাথে বন্ধুত্বে থাকার চেয়ে মহাপুরুষের সাথে বিরোধী থাকা শ্রেয় বলে মনে করেন। দুর্যোধন সেই পথেই অবলম্বন করেছেন।

প্রশ্ন নং ৭) তথাপি বক্তুং ব‍্যবসায়য়ন্তি মাং নিরস্তনারীসময়াদুরাধয়- কে কার উদ্দেশ্যে কথাটি বলেছিল?


উঃ- উক্তিটির বক্তা হলেন কিরাতার্জুনীয়ম্  মহাকাব্যের প্রথম সর্গের দ্রুপদকন্যা দ্রোপদী। তিনি উক্ত মন্তব্যগুলির দ্বারা যুধিষ্ঠিরকে উদ্দেশ্য করেছিলেন।

সময় ও দুরাধয় পদটির অর্থ কি?

সময়া পদটির অর্থ সদাচার লংঘন করা অর্থাৎ নারী জাতীয় রীতি লঙ্ঘন করাকে বোঝানো হয়েছে।

দুরাধয় পদটির অর্থ  অত‍্যন্ত মানসিক কষ্ট।

বক্তা পরবর্তী কথাগুলি বলতে কেন বাধ্য হয়েছিল?


     দ্রৌপদী নিজের আবেগকে দমন করতে না পেরে যুধিষ্ঠিরের ক্রোধকে উজ্জীবিত করার জন্যই পরবর্তী কথাগুলি বলতে বাধ্য হয়েছেন।

উক্ত উক্তিটির পরিপ্রেক্ষিতে দ্রৌপদীর যে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ফুটে উঠেছে তাতে বলা যায় তিনি একজন সুখরা। আপাত দৃষ্টিতে প্রতিহিংসা পরায়ণ রমনী বলে মনে হলেও তিনি একজন যথার্থ মহীয়সী,বীরাঙ্গণা। তাই তিনি পূর্বে বলেছেন যুধিষ্ঠিরের মত ব্যক্তির কাছে নারী ব্যক্তি উপদেশ তিরস্কার করল, সে অত্যন্ত দুঃখিত। তাই এই কারণে অনুচিৎ হলেও স্ত্রীজাতি শালীনতা রক্ষা করতে পারেন নি। সুতরাং তার মধ্যে তেজস্বিতা অপরদিকে নারী জনোচিত শিষ্ঠাচার লক্ষ্য করা যায়।

আরো দেখুন –

কিরাতার্জুনীয়ম্ মহাকাব্যের প্রথম সর্গ বনপর্ব হতে ৬নং-এর প্রশ্ন উত্তর

প্রশ্ন নং ১- উপায় কয়টি ও কী কী? রাজা দুর্যোধন উপায়গুলিকে কীভাবে প্রয়োগ করত?

প্রশ্ন নং ২ ত্বয়াঅস্তেন মহী মদচ‍্যুতা”- বক্তা কে? মহী বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে?

প্রশ্ন নং ৩ –নিরাশ্রয়াঅন্তহতামনস্বিতা- আলোচ্য উক্তিটি কে কার উদ্দেশ্যে করেছেন? মনস্বিতা কখন আশ্রয় হারিয়ে নিহত হয়? 

প্রশ্ন নং ৪  তবাভিধানাৎ ব‍্যথতে নতানন– এই উক্তিটি কে কাকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন? এখানে তবাভিধানাৎ কথাটি দ্বারা কাকে নির্দেশ করা হয়েছে? আলোচ্য শ্লোক থেকে তব কথাটির অর্থ কি? বাক্যটির তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো

প্রশ্ন নং ৫ –প্রবৃত্তিসারাঃ খলু সাদৃশ‍ং গিরঃ– উক্তিটির বক্তা কে? সাদৃশং বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে? বক্তা তার বক্তব্যকে প্রবৃত্তিসারা বলেছেন কেন?)

Leave a Comment