রাজশেখরের পরিচয়-আবির্ভাব কাল-রচিত গ্রন্থগুলির নাম-সংস্কৃত সাহিত্যের ইতিহাস

রাজশেখর (নবম-দশম শতক) সংস্কৃত সাহিত্যের ইতিহাস রাজশেখরের পরিচয়, আবির্ভাব কাল , রচিত গ্রন্থগুলির নাম বালভারতম্, বালরামায়ণ, কর্পূরমঞ্জরী for SANSKRIT WBSSC SHORT NOTES । রাজশেখরের পরিচয়, আবির্ভাব কাল , রচিত গ্রন্থগুলির নাম বালভারতম্, বালরামায়ণ, কর্পূরমঞ্জরী for SANSKRIT WBSSC SHORT NOTES.

Table of Contents

রাজশেখর-সংস্কৃত সাহিত্যের ইতিহাস

১) রাজশেখরের পরিচয় লিপিবদ্ধ করো?


উঃ- সংস্কৃত সাহিত্যের অবক্ষয় ধারার অন্তর্ভুক্ত হলেও যাযাবর গোত্রভুক্ত মহারাষ্ট্র নিবাসী রাজশেখর তার মনীষা বৈদগ্ধ‍্য পান্ডিত‍্য ও মৌলিক সৃজনী প্রতিভার গুনে সংস্কৃত সাহিত্যে বিশিষ্ট স্থান অধিকার করে আছেন

২) রাজশেখর এর আবির্ভাব কাল উল্লেখ করো?


উঃ- রাজশেখর কনৌজরাজ মহেন্দ্র পাল এবং তার পুত্র মহিপালের আচার্য ও সভাপন্ডিত ছিলেন বলে জানা যায়

অতএব রাজশেখরের আবির্ভাব কাল খ্রিস্টীয় নবম শতকের শেষশতক ও দশম শতকের প্রথম পর্ব তবে তার সাহিত্যিক জীবনকাল ৮৮০-৯২০ খৃঃ

৩) রাজশেখর কবি রূপে নিজেকে কি উপাধিতে ভূষিত করেছেন এবং কাদের সঙ্গে নিজের তুলনা করেছেন?


উঃ- রাজশখর আপন প্রতিভা ও পাণ্ডিত্য বিষয়ে খুবই সচেতন ছিলেন তিনি নিজেকে কবিরাজ( তাঁর মতে শ্রেষ্ঠ কবি কাব্য সংসারে যাদের সংখ্যা নিতান্ত স্বল্প উপাধিতে ভূষিত করেছেন –
“বভূব বাল্মিকী ভবঃ কবিঃপুরা ততঃ প্রপেদে ভুবি ভর্তৃমেনীতাম্।
স্থিতঃপূন‍্য র্যো ভবভূতিরেখয়া স বর্ততে সম্প্রতি রাজশেখরঃ।।”

৪) রাজশেখরের রচিত গ্রন্থগুলির নাম উল্লেখ করো?


উঃ- যদিও রাজশেখর তাঁর বালরামায়ণে বলেছেন যে তিনি তার পূর্বে ছয়টি গ্রন্থ রচনা করেছেন তবুও আমরা বর্তমানে রাজ শেখর রচিত পাঁচটি গ্রন্থ পাই সেগুলি হল বাল রামায়ণ বাল ভারত কর্পূর মঞ্জুরী বিদ্ধশালভঞ্জিকা কাব্য মীমাংসা এগুলির মধ্যে প্রথম চারটি নাটক শেষেরটি অলংকার শাস্ত্র জাতীয় গ্রন্থ এছাড়া হরবিলাস ভুবনকোশ এবং কবিবিমর্শ নামে রাজশেখর রচিত বলে তিনটি গ্রন্থের নাম পাওয়া যায়, কিন্তু বর্তমানে সেগুলি লুপ্ত

৫) বাল রামায়ণ কোন শ্রেণীর রচনা এর বিষয়বস্তু কি?


উঃ- রাজশেখরের বালরামায়ণ নাটক শ্রেণীর দৃশ্যকাব্য বা রূপক এতে দশটি একটি অংক আছে
রাম চন্দ্রের বাল্য জীবন থেকে শুরু করে রাবণ বধ অযোধ্যায় প্রত্যাবর্তন এবং রাজ্যভিষেক পর্যন্ত কাহিনী এর বিষয়বস্তু

৬) নাটক হিসেবে বাল রামায়ণ কতটা সফল এর বিরুদ্ধে সমালোচকদের বক্তব্য কী ছিল? রাজশেখরের পরিচয়


উঃ- নাটক হিসেবে বালরামায়ণ ব্যর্থ। এর ব্যর্থতার কারণ ও নাট‍্যসহীনতা।

মহাকাব্যোচিত আড়ম্বর প্রদর্শনের নিচে এর যাবতীয় নাট্যগুণ চাপা পড়ে গেছে সমালোচকগণ এই নাটক এবং রাজশেখরের অন্যান্য রচনাকে অত্যন্ত ও অনাবশ্যকভাবে দীর্ঘ বলে উল্লেখ করেছেন

৭) বালভারতম্ নাটকের বিষয়বস্তু উল্লেখ কর।বালভারত কি নাটক হিসেবে সার্থক?


উঃ- অনুমান করা যায় যে সমগ্র কুরুপাণ্ডব কাহিনীকে নাট্যকারএ বর্ণনা করার উদ্দেশ্যে নিয়ে বাল ভারত রচনা শুরু হয়েছিল কিন্তু কোনো এক অজ্ঞাত কারণে মাত্র দুটি অঙ্কে দ্রৌপদীর স্বয়ম্বর কুরুপান্ডবের অক্ষক্রীড়া দ্রৌপদীর নিগ্রহ ও পাণ্ডবদের বনগমন পর্যন্ত কাহিনী এতে নাট‍্যায়িত হয়েছে.
বাল ভারত নাটকের শুধুমাত্র বাচিক অভিনয় অর্থাৎ সংলাপ ও কবিতা প্রাধান‍্য পেয়েছে

কাব‍্যাংশের আধিক্যের জন্য এটি এপিধর্মী হয়ে উঠেছে নাট্যগুণ অতিমাত্রায় ব্যাহত হয়েছে অতএব বালভারত নাট্য হিসেবে সার্থক নয়

৮) বালভারতম্ কি জাতীয় দৃশ্যকাব্য এর নামান্তর কি?


উঃ- রাজ শেখর রচিত বালভারতম্ নাটক শ্রেণীর দৃশ্যকাব্য তবে রচনাটি অসম্পূর্ণ। মাত্র দুটি অঙ্কে অসমাপ্ত
বালভারতম্ নাটকের অন‍্য নাম প্রচন্ডপান্ডবম্

৯) কর্পূরমঞ্জরী কি জাতীয় রচনা এটি কোন ভাষায় রচিত?


উঃ- রাজশেখরের কর্পূরমঞ্জরী সট্টক শ্রেনীর উপরূপক বা দৃশ‍্যকাব‍্য। সংস্কৃত প্রাকৃত সাহিত‍্যে কর্পূরমঞ্জরী ই সট্টক জাতীয় রচনার প্রথম ও শেষ দৃষ্টান্ত
কর্পূরমঞ্জরী সম্পূর্ণভাবে প্রাকৃত ভাষায় রচিত।

১০) সট্টকের লক্ষণ কর। কর্পূরমঞ্জরী কি সার্থক সট্টক?


উঃ- সাহিত‍্য‍দর্পনে প্রভৃতি গ্রন্থে সট্টক এর লক্ষণ সম্পর্কে বলা হয়েছে এতে সমস্ত সংলাপ প্রাকৃত ভাষায় নিবদ্ধ হবে এতে প্রবেশক ও বিষ্কম্ভক নাম অর্থোপক্ষেপক থাকবে না

প্রচুর পরিমানে অদ্ভূত রস থাকবে এবং এর অঙ্কগুলি যবনিকা নামে অভিহিত করা হবে।
এসব লক্ষনের বিচারে দেখা যায় যে কর্পূরমঞ্জরী সার্থক সট্টক এর একটি উৎকৃষ্ট নমুনা।

১১) কর্পূরমঞ্জরী দৃশ্যকাব্যের বিষয়বস্তু উল্লেখ করো?


উঃ- এখানে রাজা চন্দ্র পালের সঙ্গে বিদর্ভরাজকুমারীর প্রণয় কাহিনী মহারানীর ক্ষোভ প্রনয়ী ও প্রণয়িনীর গোপন সাক্ষাৎ এবং শেষ পর্যন্ত উভয়ের মিলন বর্ণিত হয়েছে
শুধুমাত্র প্রাকৃত ভাষায় রচিত এই দৃশ্যকাব‍্যটি সাধারণের কাছে খুব আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয় হয়েছিল বলে জানা যায়

১২) বিদ্ধশালভঞ্জিকা কোন শ্রেণীর দৃশ্যকাব্য এর এরূপ নামকরণের কারণ কি?

উঃ- রাজ শেখর এর বিদ্ধকালভঞ্জিকা চার অংকে নাটিকা শ্রেণীর উপরূপক বা দৃশ্যকাব্য
শালভঞ্জিকা অর্থাৎ পাথরে বিদ্ধ অর্থাৎ ক্ষোদিত নারী মূর্তি দেখে নায়ক তার প্রতি আসক্ত হয়। তাই এরকম নামকরন।

১৩) বিদ্ধশালভঞ্জিকা দৃশ‍্যকাব‍্যের বিষয়বস্তু কি?


উঃ- লাটরাজ চন্দ্রবর্মনের কন‍্যা মৃগাঙ্কাবলী এবং রাজা বিদ‍্যাধর মল্লের প্রনয় কাহিনী এর বিষয়বস্তু।


অজ্ঞাত পরিচয় এক তরুণী বালকের গোপনবেশে রাজপ্রাসাদে আতিথ্য গ্রহন করল।

রাজা বিদ‍্যাধর মল্লের প্রাসাদে তরুনী মৃগাঙ্কাবলী বালকবেশী মৃগাঙ্কবর্মা নামে পরিচিত হল।

রাজমন্ত্রী ভাগুরায়নের ঘটনা সংস্থাপনের চাতুর্যে রাজা বিদ‍্যাধর সুন্দরী তরুনীর প্রথম দর্শনেই প্রেমপাশে বদ্ধ হলেন।

মন্ত্রীর কৌশলে সংঘটিত বাস্তব ঘটনার মাধ‍্যমেই মিলন সাধিত হল, কিন্তু মনে হল যেন স্বপ্নদর্শন।

১৪) রচনা ক্রম অনুসারে রাজ শেখর এর নাটক গুলি কে সাজাও?


উঃ- রাজশেখরের রচিত নাট‍্যগ্রন্থ গুলির মধ্যে কর্পূর মঞ্জুরী সম্ভবত প্রথম রচনা তারপর রচিত হয়েছে বিদ্ধশালভঞ্জিকা বালরামায়ণম্ ও সবশেষে বালভারতম্ নামক অসম্পূর্ণ নাটক

সংস্কৃত সাহিত্যের ইতিহাসের ছোট প্রশ্ন ও উত্তর গুলি নিচে দেখুন

আরো পড়ুন

VISIT OUR FACEBOOK PAGE

1 thought on “রাজশেখরের পরিচয়-আবির্ভাব কাল-রচিত গ্রন্থগুলির নাম-সংস্কৃত সাহিত্যের ইতিহাস”

Leave a Comment