সারস্বত ব‍্যাকরণ

অপাণিনীয় ব‍্যাকরণ প্রস্থানে সারস্বত ব‍্যাকরণের অবদান লেখ।সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থটির সময়কাল বা রচনাকাল রচয়িতার পরিচয় গ্রন্থের বিষয়বস্তু ও সারস্বত ব্যাকরণের বৈশিষ্ট্য গ্রন্থটির টিকা সমূহ আলোচনা হল ।

সারস্বত ব‍্যাকরণের অবদান


ভূমিকা:- অপাণিনীয় ব্যাকরণ গ্রন্থ গুলির মধ্যে সারস্বত একটি উল্লেখযোগ্য ব‍্যাকরণ গ্রন্থ ।

সারস্বত ব্যাকরণের রচয়িতা

জনশ্রুতি অনুসারে বলা যায় যে দেবী সরস্বতী কর্তৃক প্রদত্ত ৭০০ সূত্রাত্মক একখানি অতি প্রাচীন ও ক্ষুব্ধ ব্যাকরণ কে অবলম্বন করেই অনুভূতি স্বরূপাচার্য কাশীধামে সারস্বত ব‍্যাকরণ প্রণয়ন করেন। সারস্বতপ্রক্রিয়া নামক গ্রন্থের লেখক ক্ষেমেন্দ্রের কথাকে ভিত্তি করে পন্ডিত যুধিষ্ঠির মীমাংসক নরেন্দ্রচার্য নামক এক ব্যক্তিকেই সারস্বত সূত্রের মূল লেখক রূপে গণ্য করেছেন।

সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থটির সময়কাল বা রচনাকাল

সম্ভবতঃ খ্রিস্টীয় ত্রয়োদশ শতক নাগাদ এই ব‍্যাকরণ গ্রন্থটি রচিত হয়েছিল বলেই Belvalkar প্রমূখ পণ্ডিতগণ মনে করতেন। তবে কোন কোন পন্ডিত এই ব্যাকরণের সময়কালকে আরো এক শতাব্দি এগিয়ে অর্থাৎ খ্রিস্টীয় দ্বাদশ শতাব্দীতে নিয়ে যেতে চান।

সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থটির রচয়িতার পরিচয়

এই ব্যাকরণের প্রধান রচয়িতা রূপে পরিচিত অনুভূতি স্বরূপাচার্যের জীবনী সম্পর্কে বিশেষ কিছু জানা যায় না। তবে তিনি যে একজন সন্ন্যাসী ছিলেন, তা তার নাম থেকেই বোঝা যায়।

সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থের বিষয়বস্তু

এই ব্যাকরণটি সূত্রসপ্তশতী বা ৭০০ সূত্রাত্মক হিসেবে খ্যাতি লাভ করলেও বর্তমানে প্রচলিত সাধারণ সংস্করণগুলিতে প্রায় ১৬০০ সূত্র দেখা যায়। কিন্তু কোন কোন সংস্করণে (যেমন – সদাশিব শাস্ত্রি সম্পাদিত সিদ্ধান্ত চান্দ্রিকা -য় ) এই সারস্বত ব্যাকরণের মোট সূত্র সংখ্যা দুই হাজারেরও বেশি।

সারস্বত ব্যাকরণের বৈশিষ্ট্য

অতি সাধারণ ভাবে সংস্কৃত ভাষা শিক্ষা দেবার জন্যই এই ব্যাকরণ গ্রন্থটি রচিত হয়েছিল বলে মনে হয়। বিষয়- বিন্যাসে ভাষা শিক্ষার উপযোগী-সংজ্ঞা, সন্ধি, স্ত্রী-প্রত্যয়, কারক, সমাস, তদ্ধিত, অখ‍্যাত এবং কৃৎ প্রত্যয়।

সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থটির টিকা সমূহ

এই ব্যাকরণের ওপরে বহু টীকা-টীপ্পনী রচিত হয়েছে। এগুলির মধ্যে নরেন্দ্রমুনির ছাত্র মন্ডনাচার্যের ‘সারস্বতমন্ডন’ , চন্দ্রকীর্তির টীকা, মাধবের মাধবটীকা, অমৃত ভারতীর সুবোধিনী টীকা, রামাশ্রমের সিদ্ধান্তচান্দ্রিকা বৃত্তি, বাসুদেবের সারস্বতক্রমকৌমুদী প্রভৃতি বিশেষ উল্লেখযোগ্য। এরমধ্যে রামাশ্রমের নাম খুবই প্রসিদ্ধ। শোনা যায় যে প্রখ্যাত বৈয়াকরণ ভট্টোজি দীক্ষিতের পুত্র ভানুজি দীক্ষিতই সন্ন্যাস গ্রহণের পর রামাশ্রম বা রামভদ্রাশ্রম নামে পরিচিত হয়েছিলেন।

সারস্বত ব‍্যাকরণ গ্রন্থের মূল্যায়ন

এইসব বিভিন্ন কারনে সারস্বত ব্যাকরণ সংস্কৃত ব্যাকরণের ইতিহাসে একটি বিশেষ স্থান অধিকার করে আছে।

Leave a Comment