মা লক্ষ্মী পূজার পুষ্পাঞ্জলি,ধ্যান, প্রণাম, প্রার্থনা মন্ত্র ও স্তোত্রম্ | শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্

শ্রীশ্রী মা লক্ষ্মী পূজার মন্ত্র, প্রণাম মন্ত্র, প্রার্থনা মন্ত্র ও স্তোত্রম্ দেওয়া হল। নিম্নে শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্ দেখুন ।

Table of Contents

মা লক্ষ্মী পূজার পুষ্পাঞ্জলি,ধ্যান, প্রণাম, প্রার্থনা মন্ত্র ও স্তোত্রম্ Pdf

মা লক্ষ্মী পূজার পুষ্পাঞ্জলি মন্ত্র

ওঁ নমস্তে সর্ব্বদেবানাং

বরদাসি হরিপ্রিয়ে।

যা গতিস্তৎ প্রপন্নানাং

সা মে ভুয়াত্তদৰ্চ্চনাৎ ॥

এষ সগন্ধপুষ্পবিল্বপত্রাঞ্জলিঃ

শ্রীং লক্ষ্মীদেব্যৈ নমঃ।

 এই ভাবে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে নমস্কার করিবেন।

মা লক্ষ্মীর ধ্যান মন্ত্র

ওঁ পাশাক্ষমালিকাম্ভোজ-সৃণিভির্ষাম্য-সৌম্যয়োঃ।

পদ্মাসনাস্থাং ধ্যায়েচ্চ শ্রিয়ং ত্রৈলোক্যমাতরম্।।

গৌরবর্ণাং সুরুপাঞ্চ সর্বলঙ্কার-ভূষিতাম্।

রৌক্মপদ্ম-ব্যগ্রকরাং বরদাং দক্ষিণেন তু।।

মা লক্ষ্মীর ধ্যানমন্ত্রটির অর্থঃ দক্ষিণহস্তে পাশ, অক্ষমালা এবং বামহস্তে পদ্ম ও অঙ্কুশধারিণী, পদ্মাসনে উপবিষ্টা, শ্রীরূপা, ত্রিলোকমাতা, গৌরবর্ণা, সুন্দরী, সর্বালঙ্কারভূষিতা, ব্যগ্রহস্তে স্বর্ণপদ্মধারিণী এবং দক্ষিণহস্তে বরদাত্রী দেবীকে ধ্যান করি।

মা লক্ষ্মী পূজার মন্ত্র

“নমামি সর্বভূতানাং বরদাসি হরিপ্রিয়ে

যা গতিস্ত্বৎপ্রপন্নানাং সা মে ভূয়াৎ ত্বদর্চনাৎ।”

ওঁ বিশ্বরূপস্য ভার্যাসি পদ্মে পদ্মালয়ে শুভে।

সর্বতঃ পাহি মাং দেবি মহালক্ষ্মী নমহস্তু তে।।

মা লক্ষ্মী পূজার প্রণাম মন্ত্র

ওঁ বিশ্বরূপস্য ভার্য্যাসি

পদ্মে পদ্মালয়ে শুভে।

সৰ্ব্বতঃ পাহি মাং দেবি

মহালক্ষ্মী নমোহস্তু তে।।

পদ্মাসন স্থিতে দেবী

পরমব্রহ্মস্বরূপিণী,

সর্বদুঃখ হরে

মহালক্ষ্মী নমোস্তুতে ।

মা লক্ষ্মী পূজার প্রার্থনা মন্ত্র

ও বিশ্বরূপস্য ভার্য্যাসি পদ্মে পদ্মালয়ে শুভে।

 মহালক্ষ্মী নমস্তুভ্যং সুখরাত্রিং কুরুস্ব মে ॥

বর্ষকালে মহাঘোরে যন্ময়া দুষ্কৃতং কৃতম।

 সুখরাত্রিপ্রভাতেহদ্যতন্মে লক্ষ্মীর্ব্যাপোহতু ॥

যা রাত্রিঃ সর্ব্বভূতানাং যা চ দেবেষ্ববস্থিতা।

 সংবৎসরপ্রিয়া যা চ সা মমাস্ত সুমঙ্গলা ॥

মাতা ত্বং সর্ব্বভূতানাং দেবানাং সৃষ্টিসম্ভবা।

আয়াতা ভূতলে সেবি সুখরাত্রি নমোহস্ত তে ৷

মা লক্ষ্মী স্তোত্রম

ওঁ ত্রৈলোক্য-পূজিতে দেবি কমলে বিষ্ণুবল্লভে।

যথা ত্বং সুস্থিরা কৃষ্ণে তথা ভব ময়ি স্থিরা৷৷ ১ ৷৷

 ঈশ্বরী কমলা লক্ষ্মীশ্চলা ভূতিহরিপ্রিয়া।

 পদ্মা পদ্মালয়া সম্পদ রমা শ্রীঃ পদ্মধারিণী । ২।

দ্বাদশৈতানি নামানি লক্ষ্মীং সংপূজ্য যঃ পঠেং।

স্থিরা লক্ষ্মীর্ভবেৎ তস্য পুত্রদারাদিভিঃ সহ ।।৩।।

ইতি শ্রীপদ্মপুরাণে শ্রীলক্ষ্মীস্তোত্রং সমাপ্তম্।

মা লক্ষ্মীর স্তুতি

লক্ষ্মীস্তং সর্বদেবানং যথাসম্ভব নিত্যশঃ।

স্থিরাভাব তথা দেবী মম জন্মনি জন্মনি।।

বন্দে বিষ্ণু প্রিয়াং দেবী দারিদ্র্য দুঃখনাশিনী।

ক্ষীরোদ সম্ভবাং দেবীং বিষ্ণুবক্ষবিলাসিনী।।

মা লক্ষ্মীর মন্ত্র

শ্রী লক্ষ্মীর পূজার আবাহন মন্ত্রটি হল

ওঁ লক্ষ্মীদেবী ইহাগচ্ছ ইহাগচ্ছ

ইহ তিষ্ঠ ইহ তিষ্ঠ ইহ সন্নিধেহি

ইহ সন্নিরুদ্ধস্য অত্রাধিষ্ঠান

কুরু মম পূজান গৃহাণ।

শ্রী লক্ষ্মী পূজার বীজ মন্ত্র:

ওম শ্রীশ্রী শ্রী কমলে কমলালয়ে প্যাসেদ

প্রসাদ শ্রীমাদ শ্রী শ্রী শ্রী শ্রী মহালক্ষ্মী নমঃ।

লক্ষ্মী পূজার প্রার্থনা মন্ত্র:

নমস্কার সর্বগেবনান বরদাসি হরেঃ প্রিয়া।

শ্রী লক্ষ্মী পূজার মহামন্ত্রঃ

ওম শ্রী লক্ষ্মী মহালক্ষ্মী মহালক্ষ্মী 

ইহিয়েহি সর্ব সৌভাগ্যম দেহি মে স্বাহা।

মাতা লক্ষ্মী পূজার মন্ত্র

ওম শ্রী হ্রিণ শ্রী কমলে কমলালে প্রসিদ

প্রসিদ শ্রী হ্রীণ শ্রী ওম মহালক্ষ্মী নম:।।

ওম শ্রী লক্ষ্মী মহালক্ষ্মী মহালক্ষ্মী ইহিয়েহি

সর্ব সৌভাগ্যম দেহি মে স্বাহা।

ওম শ্রী হ্রিণ ক্লীণ শ্রী সিদ্ধ লক্ষ্ম্যায় নম:।।

পদ্মণে পদ্ম পদ্মাক্ষ্মী পদ্ম সম্ভবে তন্মে ভজসি

পদ্মক্ষি য়েন সৌখ্যম্ লভম্যহম্।

ওম হ্রিণ ত্রিন হু ফট।


শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-১

শ্রীমৎপয়োনিধিনিকেতন চক্রপাণে

ভোগীন্দ্রভোগমণিরঞ্জিতপুণ্যমূর্তে ।

যোগীশ শাশ্বত শরণ্য ভবাদ্ধিপোত

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ১

অর্থাৎ- হে অতি শোভায়মান ক্ষীরসমুদ্রে নিবাসকারী, হস্তে চক্রধারণকারী, শেষনাগের মণিদ্বারা দেদীপ্যমান মনোহর মূর্তিসম্পন্ন ! হে যোগীশ ! হে সনাতন ! হে শরণাগতবৎসল ! হে সংসারসাগরের তরণীস্বরূপ ! হে শ্রীলক্ষ্মীনৃসিংহ ! আমাকে তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ১

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-২

ব্রহ্মেন্দ্ররুদ্ররুদর্ককিরীটকোটি-

সঙ্ঘট্টিকাঙ্ঘ্রিকমলামলকান্তিকান্ত ।

লক্ষ্মীলসৎকুচসরোরুরাজহংস ।

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ২

অর্থাৎ- তোমার অমল চরণকমল ব্রহ্মা, ইন্দ্র, রুদ্র, মরুত এবং সূর্যের কিরীটিতে দেদীপ্যমান হয়ে রয়েছে । হে লক্ষ্মীদেবীর কুচকমলের রাজহংস শ্রীলক্ষ্মীনৃসিংহ ! আমাকে তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ২

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৩

সংসারঘোরগহনে চরতো মুরারে

মারোগ্রভীকরমৃগপ্রবরার্দিতস্য ।

আর্তস্য মৎসরনিদাঘনিপীড়িতস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৩

অর্থাৎ- হে মুরারি! সংসাররূপ গভীর বনে বিচরণকারী কামদেবরূপ অতি উগ্র ও ভয়ানক সিংহ দ্বারা আক্রান্ত এবং ঈর্ষারূপ তাপে সন্তপ্ত এই আর্তকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! আমাকে তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৩

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৪

সংসারকূপমতিঘোরমগাধমূলং

সম্প্রাপ্য দুঃখশতসর্পসমাকুলস্য ।

দীনস্য দেব কৃপণাপদমাগতস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৪

অর্থাৎ- সংসাররূপ অত্যন্ত ভয়ানক এবং অগাধ কূপের মধ্যে পতিত হয়ে যে বহুপ্রকার দুঃখরূপ সর্পে পতিত হয়ে যে বহুপ্রকার দুঃখরূপ সর্পে ভীতসন্ত্রত ও দীন হয়েছে, সেই অতিকৃপণ ও বিপদগ্রস্ত আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৪

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৫

সংসারসাগরবিশালকরালকাল-

নক্রগ্রহসননিগ্রহবিগ্রহস্য ।

ব্যগ্রস্য রাগরসনোর্মিনিপীড়িতস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৫

অর্থাৎ- সংসারসাগরে অতি করাল ও মহাকালরূপ নক্র এবং মকরের গ্রাসে যার শরীর নিগৃহীত হচ্ছে এবং বিষয়াসক্তি ও রসনারূপ তরঙ্গমালায় যে অত্যন্ত পীড়িত, সেই আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৫

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৬

সংসারবৃক্ষমঘবীজমনন্তকর্ম-

শাখাশতং করণপত্রমনঙ্গপুস্পম্ ।

আরুহ্য দুঃখফলিতং পততো দয়ালো

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৬

অর্থাৎ- হে দয়াল ! পাপ যার বীজ, অনন্ত কর্ম যার অসংখ্য শাখা, ইন্দ্রিয়াদি পত্রস্বরূপ , কামদেব পুস্প আর দুঃখই যার ফল, সেই সংসাররূপ বৃক্ষে আরোহণ করে আমি পতিত হচ্ছি, এইরূপ আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৬

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৭

সংসারসর্পঘনবক্ত্রভয়োগ্রতীব্র-

দংষ্ট্রাকরালবিষদগ্ধবিনষ্টমূর্তেঃ ।

নাগারিবাহন সুধাগ্ধিনিবাস শৌরে

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৭

অর্থাৎ- এই সংসার সর্পের বিকট মুখের ভীতিপ্রদ উগ্র দন্তের করাল বিষে দগ্ধ হয়ে বিনষ্টিভূত আমাকে হে গরুড়বাহন , ক্ষীরসাগরে শয্যা গ্রহণকারী ,শৌরি হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৭

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৮

সংসারদাবদহনাতুরভীকরোরু-

জ্বালাবলীভিরতিদগ্ধতনূরূহস্য ।

ত্বৎপাদপদ্মসরসীশরণাগতস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৮

অর্থাৎ- সংসাররূপ দাবানলের দাহে আতুর এবং তার ভয়ঙ্কর ও বিশাল দাহে যার প্রতি লোম লোম দগ্ধ হচ্ছে , যে আপনার চরণ কমলরূপ সরোবরের আশ্রয় গ্রহণ করেছে, সেই আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৮

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-৯

সংসারজালপতিতস্য জগন্নিবাস

সর্বেন্দ্রিয়ার্তবড়িশার্থঝষোপমস্য ।

প্রোৎখণ্ডিতপ্রচুরতালুকমস্তকস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ৯

অর্থাৎ- হে জগন্নিবাস! সকল ইন্দ্রিয়ের বিষয়রূপ ফাঁসে বড়শি ( মাছধরার কাঁটা ) বিদ্ধ মাছের ন্যায় সংসারপাশে আবদ্ধ হয়ে যার তালু এবং মস্তক বিছিন্ন হয়েছে, সেই আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ৯

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-১০

সংসারভীকরকরীন্দ্রকরাভিঘাত-

নিস্পিষ্টমর্মবপুষঃ সকলার্তিনাশ ।

প্রাণপ্রয়াণভবভীতিসমাকুলস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ১০

অর্থাৎ- হে সকলার্তিনাশন ! সংসাররূপ ভয়ানক গজরাজের শুঁড়ের আঘাতে যার মর্মস্থান ক্ষত- বিক্ষত হয়েছে এবং যে প্রাণপ্রয়াণের ন্যায় সংসারে জন্ম- মৃত্যু ভয়ে ব্যাকুল, সেই আমাকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ১০

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-১১

অন্ধস্য মে হৃতবিবেকমহাধনস্য

চোরৈঃ প্রভো বলিভিরিন্দ্রিয়নামধেয়ৈঃ ।

মোহান্ধকূপকুহরে বিনিপাতিতস্য

লক্ষ্মীনৃসিংহ মম দেহি করাবলম্বম্ ।। ১১

অর্থাৎ- হে প্রভু! ইন্দ্রিয় নামক প্রভাবশালী তস্কর যার বিবেকরূপ পরমধন হরণ করে মোহরূপ অন্ধকূপের গর্তে ফেলে দিয়েছে, সেই আমার ন্যায় অন্ধকে হে লক্ষ্মীনৃসিংহ ! তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।। ১১

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-১২

লক্ষ্মীপতে কমলনাভ সুরেশ বিষ্ণো

বৈকুণ্ঠ কৃষ্ণ মধুসূদন পুস্করাক্ষ ।

ব্রহ্মণ্য কেশব জনার্দন বাসুদেব

দেবেশ দেহি কৃপণস্য করাবলম্বম্ ।। ১২

অর্থাৎ- হে লক্ষ্মীপতে ! হে কমলনাভ! হে দেবেশ্বর ! হে বিষ্ণো ! হে বৈকুণ্ঠ ! হে কৃষ্ণ ! হে মধুসূদন ! হে কমলনয়ন ! হে ব্রহ্মণ্য ! হে কেশব ! হে জনার্দন ! হে বাসুদেব ! হে দেবেশ! আমার ন্যায় দীনকে তোমার করকমলে আশ্রয় দাও ।

শ্রীলক্ষ্মী নৃসিংহ স্তোত্রম্-১৩

যন্মায়য়োর্জিতবপুঃপ্রচুরপ্রবাহ-

মগ্নার্থমত্র নিবহোরুকরাবলম্বম্ ।

লক্ষ্মীনৃসিংহচরণাব্জমধুব্রতেন

স্ত্রোত্রং কৃতং সুখকরং ভুবি শঙ্করেণ ।। ১৩

অর্থাৎ- যার স্বরূপ মায়াদ্বারা প্রকটিত, সেই সংসারপ্রবাহে নিমগ্ন পুরুষদের জন্য ইহলোকে দৃঢ় বাহুর অবলম্বনের ন্যায় অতি সুখপ্রদ স্তোত্র এই পৃথিবীতে লক্ষ্মীনৃসিংহের চরণকমলের উদ্দেশ্যে মধুকররূপ শ্রীশঙ্করাচার্য্য রচনা করেছেন । ১৩

ইতি শ্রীমচ্ছঙ্করাচার্য্যকৃতং শ্রীলক্ষ্মীনৃসিংহস্তোত্রং সম্পূর্ণম্


Leave a Comment