বাসস্তিকস্বপ্নম্ : কথয় বাসু কিংবা যুক্তং সময়বিরুধ্বাচরণম্

শ্রীকৃষ্ণমাচার্য রচিত বাসস্তিকস্বপ্নম্ -এর প্রথম অঙ্কের নির্বাচিত অংশ অর্থাৎ নাট্যাংশ হতে প্রশ্ন – কথয় বাসু কিংবা যুক্তং সময়বিরুধ্বাচরণম্ – কে, কার উদ্দেশ্যে উক্তিটি করেছেন? ‘বাসু’ বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে? বক্তা কী সময় বিরুধ্বাচরণ করেছিলেন?

শ্রীকৃষ্ণমাচার্য রচিত বাসস্তিকস্বপ্নম্ নাট্যাংশ হতে প্রশ্ন

প্রশ্ন‘ কথয় বাসু কিংবা যুক্তং সময়বিরুধ্বাচরণম্ – কে, কার উদ্দেশ্যে উক্তিটি করেছেন? ‘বাসু’ বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে? বক্তা কী সময় বিরুষ্মাচরণ করেছিলেন?

কথয় বাসু কিংবা যুক্তং সময়বিরুধ্বাচরণম্

উত্তর

বক্তা – শ্রীকৃষ্ণমাচার্য রচিত বাসস্তিকস্বপ্নম্ -এর প্রথম অঙ্কের নির্বাচিত অংশ অর্থাৎ আমাদের নাট্যাংশের রাজা ইন্দ্রবর্মা বৃদ্ধ ব্রাহ্মণ ইন্দুশর্মার কন্যা কৌমুদীর প্রতি কথয় বাসু কিংবা যুক্তং সময়বিরুধ্বাচরণ এই উক্তিটি করেছেন।

বসু শব্দের অর্থ –

আলোচ্য নাট্যাংশের উক্তিটিতে ‘বাসু‘ বলতে রাজা ইন্দ্রবর্মা কৌমুদীকে সম্বোধন করে কন্যা বা মেয়ে অর্থে প্রয়োগ করা হয়েছে।

বক্তার সময়বিরুধ্বাচরণ

সময় শব্দের অর্থ নিয়ম । রাজা কৌমুদীকে রাজ্যের নিয়ম রক্ষা করার কথা বলেছেন। নাটকের কহীন অনুসারে রাজা ইন্দ্রবর্মার রাজ্যের নিয়ম ছিল সন্তানেরা বিয়ের ব্যাপারে তাদের অভিভাবকের মত গ্রহণ করতে বাধ্য অর্থাৎ পিতার আদেশ অমান্য করে বিবাহ করা দন্ডনীয় অপরাধ।

কিন্তু কন্যা কৌমুদী বসন্তকে ভালোবাসে, আর পিতা অন্য যুবক মকরন্দকে কন্যার জন্য উপযুক্ত পাত্র নির্ধারণ করেছেন। কৌমুদী বাবার আদেশ মানবেন না । এই হেন রাজ্যের অনাচারের বা নিয়মের বিরুদ্ধে স্বয়ং বৃদ্ধ পিতা রাজার কাছে সুবিচারের প্রার্থনা দাবি করেছেন।

রাজা দণ্ডনীতির প্রথম ধাপ ‘সাম’ নীতির প্রয়োগ করে কৌমুদীকে রাজ্যের নিয়মের বিরোধী না হওয়ার কথাই ব্যস্ত করেছেন। তিনি বলেছেন পিতার মত অনুসারে মকরন্দকে কৌমুদীর বিবাহ করা উচিত ।

সুতরাং কৌমুদীর পক্ষে পিতার আদেশ লঙ্ঘনের জন্য শাস্তি অব্যাহত রয়েছে। এই ‘পিতার আদেশ লঙ্ঘনই হল ‘নিয়মের বিরুদ্ধাচরণ’।

Leave a Comment