(অনুবাদ) একাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত – মেঘদূত | Class XI Sanskrit meghdutam shlok

একাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত – মেঘদূত (অনুবাদ) | Class XI Sanskrit meghdutam shlok

মেঘদূতম্

একাদশ শ্রেণীর সংস্কৃত – মেঘদূত Class XI Sanskrit meghdutam shlok

শ্লোক-১

কশ্চিৎ কান্তাবিরহগুরুনা স্বাধিকারপ্রমত্তঃ।

শাপেনঅস্তংগমিতমহিমা বর্ষভোগ‍্যেন ভর্তুঃ।

যক্ষশ্চক্রে জনকতনয়াস্নানপুন‍্যোদকেষু

স্নিগ্ধচ্ছায়াতরষু বসতিং রামগির্যাশ্রমেষু।।”

বঙ্গানুবাদঃ- নিজ কর্তব্য কর্মে অবহেলা করার জন‍্য কোনো এক যক্ষ তার প্রভুর অভিশাপে এক বছরের জন‍্য নির্বাসিত হলেন। প্রিয়তমার বিরহে তার সমস্ত সৌন্দর্য ম্লান হল। সেই যক্ষ যনক কন‍্যা সীতা দেবীর ম্লানের পবিত্র জলাশয় ও স্নিগ্ধ ছায়া তরুতে রামগিরি আশ্রমে বসবাস করেছিলেন।

শ্লোক-২

তস্মিনঅদ্রৌ কতিচিদবলাবিপ্রযুক্তঃ সকামী।নীত্বা মাসান্ কনকবলয়ভ্রংক্ষয়িক্ত প্রকোষ্ঠঃ।আষাঢ়স‍্য প্রথমদিবসে মেঘমাশ্লিষ্টসানুংবপ্রক্রীড়াপরিঢতগজপ্রেক্ষনীয়ং দদর্শ।।

বঙ্গানুবাদঃ- প্রেমিকার বিরহে বিচ্ছেদ কামনা প্রবণ সেই যক্ষ ঐ পর্বতে কয়েকমাস অতিবাহিত করল। বিরহ দুঃখে শীর্ণ যক্ষের হাত থেকে সোনার বলয় খুলে পড়ল। আষাঢ় মাসের প্রথম দিনে পর্বতের মধ‍্যবর্তী দেশে সংলগ্ন এক খন্ড মেঘকে দেখতে পেল। মনে হচ্ছিল যেন এক পরিণত বয়স্ক হস্তি বপ্রক্রীড়ায় মত্ত হয়েছে।

শ্লোক-৩

তস‍্য স্থিত্বা কথমপী পুরঃ কৌতুকধানহেতো-

অন্তর্বাষ্পশ্চিরমনুচরো রাজরাজস‍্য দধ‍্যো।

মেঘালোকে ভবতি সুখিনোঅপিন‍্যাথাবৃত্তিচেতঃ

কন্ঠাশ্লেষপ্রণয়িনি জনে কিং পুনর্দূরসংস্থে।।”

বঙ্গানুবাদঃ- অলকাপতি কুবেরের অনুচর সেই যক্ষ কামনার উদ্দীপক মেঘের সামনে কোন রকমে অশ্রু সংবরণ করে দীর্ঘক্ষণ চিন্তায় মগ্ন রইল। কারণ মেঘ সুখী ব‍্যক্তির হৃদয়ও অস্থির হয়ে ওঠে আর কন্ঠও আলিঙ্গন করতে ইচ্ছুক প্রিয়জন দূরে থাকলে তার (যক্ষের) হৃদয় ব্যথিত হবেই।

শ্লোক-৪

প্রত‍্যাসন্নে নভসি দুয়িতাজীবিতালম্বনার্থীজীমুতেন

স্বকুশলময়ীং হারয়িষ‍্যন প্রবৃত্তিম্।

স প্রত‍্যগ্রৈঃ কুটজকুসুমৈঃ কল্পিতার্ঘ‍্যায়

তস্মৈপ্রীতঃ প্রীতিপ্রমুখবচনং স্বাগতং ব‍্যজহার।”

অন্বয় ও শব্দার্থঃ-

নভসি(আকাশে) প্রত‍্যাসন্নে(সমাগত হলে) দুয়িতা(প্রেমিকা) জীবিকালম্বনার্থী(জীবনরক্ষা করতে ইচ্ছুক) স (সে) জীমুতেন(মেঘের মাধ‍্যমে) স কুশলময়ীং প্রবৃত্তিম্(নিজের ভালো সংবাদ) হারয়িষ‍্যন্ (পাঠাতে চাইল) প্রত‍্যগ্রৈঃ(সদ‍্যপ্রস্ফুটিত) কুটজকুসুমৈ(কুটজ ফুলের দ্বারা) কল্পিতার্ঘ‍্যায় (অর্ঘ‍্য রচনা করে)তস্মৈ(তাকে/মেঘকে) প্রীতঃ(প্রসন্নহৃদয়) প্রীতিপ্রমুখবচনম্(প্রীতিপুর্ণ বাক‍্যে) স্বাগতম্ ব‍্যজহার(স্বাগত জানাল)।

বঙ্গানুবাদঃ-

আকাশে আষাড় মেঘ আগত প্রায়। যক্ষ তার প্রিয়তমার প্রাণ রক্ষার জন্য মেঘের মাধ্যমে পত্নীর কাছে নিজের কুশল সংবাদ পাঠাতে চাইল। সদ‍্য প্রস্ফুটিত কুটজফুলের অর্ঘ‍্য রচনা করে প্রসন্নচিত্তে প্রীতিপুর্ণবাক‍্যে মেঘকে স্বাগত জানাল।

শ্লোক-৫

ধূমজ‍্যোতিঃ সলিলমরুতাং সন্নিপাতঃ কব মেঘঃ।সংদেশার্থাঃ কব পঢ়ুকরনৈঃ প্রাণিভিঃ প্রাপনীয়াঃ।ইতি উৎসুকাৎ অপরিগনয়ন গুহ‍্যক অস্তং যযাচে।কামার্তা হি প্রকৃতি কৃপনাশ্চেতনাচেতনেষু।।”

অন্বয় ও শব্দার্থঃ-

ধূম(ধোঁয়া) জ‍্যোতিঃ (আলো) সলিল(জল) মরুতাং(বাতাস)সন্নিপাতঃ(সম্বিলিত) মেঘঃ(মেঘ) কব(কোথায়) পটুকরনৈঃ(ইন্দ্রিয়সমর্থযুক্ত) প্রাণিভি(প্রাণীদের দ্বারা) সংদেশার্থাঃ(প্রেরণযোগ‍্য সংবাদ ) কব(কোথায়) ইতি(এই) উৎসুকাৎ(আবেগবশত) অপরিগনয়ন(বিচারবিবেচনা না করে) গুহ‍্যক(যক্ষ) তং(তার কাছে) যযাচে(প্রার্থনা জানাল)। কামার্তা(কামপ্রবণ ব‍্যাক্তিগন) চেতন-অচেতনেষু(চেতন ও অচেতনের মধ‍্যে ভেদাভেদ) প্রকৃতি(স্বভাবতই)কৃপণা(করতে পারেনা)।

বঙ্গানুবাদঃ-

ধোঁয়া, আলো,জল ও বায়ুর সমন্বয়ে সৃষ্ট মেঘ কোথায়! আর সমর্থ ইন্দ্রিয়যুক্ত প্রাণীদের দ্বারা প্রেরণ যোগ্য সংবাদই বা কোথায়! যক্ষ সেই সব বিচার বিবেচনা না করেই আবেগবশত সেই মেঘের কাছে প্রার্থনা জানাল।কারণ কামাতুর ব্যক্তিগত চেতন ও অচেতনের বিষয়ে ভেদাভেদ করতে পারে না।

শ্লোক-৬

জাতং বংশে ভুবনবিদিতে পুরস্করাবর্তকানাং।জানামি ত্বাৎ প্রকৃতিপুরুষং কামরূপং মঘোন।তেনার্থিত্বং ত্বমি বিধিবশ‍্যাৎদুরবন্ধুর্গোতঅহং।যাঞ্চা মোঘা বয়ম্ অধিগুনে নাধমে লব্ধকামা।।

অন্বয় ও শব্দার্থঃ-

ত্বাং(তোমাকে) জানামি(আমি জানি) ভুবনবিদিতে(জগৎবিখ‍্যাত) পুষ্কর-আবর্তকানাং (পুষ্কর ও আবর্তকদের) বংশে(বংশে) জাতং(জন্মগ্রহন করেছ) কামরূপম্(ইচ্ছা অনুসারে রূপধারী)মোঘনঃ(ইন্দ্র) প্রকৃতি পুরুষম্(প্রধান পুরুষ) তেন(সেইজন‍্য) বিধিবশ‍্যাৎ(দৈব অভিশাপে) দূরবন্ধু (প্রিয়তমা দূরে আছে যার )অহম্ (আমি) ত্বয়ি (তোমাতে) আর্থিত্বমগতঃ(প্রার্থী হয়েছি) অধিগুনে(গুনবানের কাছে) যাঞ্চা(প্রার্থনা) মোঘা(বিফল) বরম্(ভাল) অধমে(অধমব‍্যাক্তির কাছে) লব্ধকামা(সফল প্রার্থনা ) ন(নয়)।

বঙ্গানুবাদঃ-

হে মেঘ আমি জানি তুমি জগৎ বিখ্যাত পুষ্কর ও আবর্তকদের বংশে জন্মগ্রহণ করেছ। তুমি ইন্দ্রের প্রধান পুরুষ।তুমি ইচ্ছা অনুসারে রূপ পরিবর্তন করতে পারো। দুর্ভাগ্যবশত আমার প্রিয়তমা দূরে রয়েছে। তাই আমি তোমার কাছে প্রার্থী হয়েছি। গুণবানের কাছে প্রার্থনা করে যদি বিফল হয় তাও ভাল। কিন্তু অধম এর নিকট প্রার্থনা সফল হওয়া ভালো নয়।

শ্লোক-৭

সংতপ্তানাং ত্বমসি শরণং তত্ পর্ষাদ প্রিয়ায়া

সংদেশং মে হর ধনপতিক্রোধবিশ্লেষিতস‍্য।

গন্তব‍্যা তে বসতিরণকা নাম যক্ষেশ্বরানাম্।

বাহ‍্যোদ‍্যানস্থিতহরশিরশ্চন্দ্রিকা ধ‍্যৌতঅর্ম‍্যা।।

অন্বয় ও শব্দার্থঃ-

পয়ো(হে মেঘ) ত্বম্(তুমি) সংতপ্তানাং (তাপিত জনের) সরনমঅসি(আশ্রয় হয়) তৎ(তাই) ধনপতি(ধনপতি কুবের) ক্রোধবিশ্লেষিতস‍্য(রাগের কারনে প্রিয়তমা থেকে দূরে)মে(আমার) সংদেশম্(সংবাদ) প্রিয়ায়াঃ(প্রিয়তমার কাছে) হর(পৌঁছে দাও) বাহ‍্যা উদ‍্যানস্থিত(বাইরের উদ‍্যানে অবস্থিত) হরশিরচন্দ্রিকাধৌত(মহাদেবের মস্তকে অবস্থিত চন্দ্রের কিরণে ধৌত) অর্ম‍্যা(অট্টালিকা) অলকানাম(অলকানামক) যক্ষেসরানাম্(যক্ষেসরের)তে গন্তব‍্যা(তোমাকে যেতে হবে)।

বঙ্গানুবাদঃ- হে মেঘ! তুমি তাপিত জনের আশ্রয় দাতা। ধনপতি কুবেরের ক্রোধে আমি প্রিয়তমার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন। তাই আমার সংবাদ তুমি প্রিয়তমার কাছে পৌঁছে দাও। যেখানে বাইরের উদ‍্যানে অবস্থিত অট্টালিকা গুলি মহাদেবের মস্তকস্থিত চন্দ্রকিরনে উৎভাসিত। সেই যক্ষস্বরের নিবাস অলকা পুরিতে তোমাকে যেতে হবে।

শ্লোক- ৮

ত্বামারুঢ়ং পবনপদবীমুদগৃহীতালকান্তা।

প্রেক্ষিষ‍্যন্তে পথিকবনিতাঃ প্রত‍্যযাদাশ্বসত‍্যঃ।

কঃ সংদ্ধে বিরহবিধুনাং ত্বয‍্যুপেক্ষেত জায়াং।

ন সাদন‍্যো অপি অমিব জনো য পরাধিনবৃত্তিঃ।।

অন্বয় ও শব্দার্থঃ-

পবনপদবিম(বাতাসকে অবলম্বন করে) (আকাশ পথে) আরুঢ়ং(আরোহনকারী) ত্বাম্(তোমাকে) প্রত‍্যয়াত(বিশ্বাসবশত) আশ্বসত‍্য(আশ্বাস হয়ে) পথিকবনিতা(প্রসিতভর্তিকা রমনীগন) উদগৃহীত অলকান্তা(এলোমেলো চুলগুলি মুখ থেকে সরিয়ে ) প্রেক্ষিসন্তে(দেখতে থাকবে) ত্বয়ি(তুমি) সংদ্ধে(সঞ্চারিত হলে) বিরহবিধুরাম(বিরহকাতম) জায়াম(পত্নিকে) কঃ(কে) উপেক্ষেত(উপেক্ষা করতে পারে) অন‍্যঃ অপি(অন‍্য কেও) যঃ(যে) জনঃ(ব‍্যাক্তি) অহমএব(আমার মতো) পরাধিনবৃত্তি(পরের অধীনস্ত) নঃ স‍্যাত(হয় না)।

বঙ্গানুবাদঃ-

বাতাসকে অবলম্বন করে আকাশে তোমাকে উড়ে যেতে দেখলে প্রোষিতভর্তৃকা রমনীগন এলোমেলো চুলগুলো মুখে থেকে সরিয়ে তোমাকে(মেঘকে) দেখবে। আমার মতো পরাধীন ব্যক্তি ছাড়া এমন আর কে আছে,যে তোমাকে আকাশে দেখেও বিরহ ব্যাকুল পত্নিকে উপেক্ষা করতে পারে?

Leave a Comment