আত্মনেপদবিধান

আত্মনেপদবিধান বলতে কী বোঝ? দুটি উদাহরণের সাহায‍্যে বুঝিয়ে দাও।

আত্মনেপদবিধান বলতে কী বোঝ?

উ:- সংস্কৃত ভাষায় কতকগুলি ধাতু পরস্মৈপদী কতকগুলি আত্মনেপদী, আবার কতকগুলি ধাতু উভয়পদী হয়।
আত্মনেপদবিধান:- যে নিয়ম অনুসারে পরস্মৈপদী ধাতুগুলিকে আত্মনেপদে পরিণত করা হয়, সেই বিশেষ নিয়মাবলীকে আত্মনেপদবিধান বলা হয়।

যে সমস্ত ধাতু বা ক্রিয়ার ফল কর্তা নিজে ভোগ করে, সেই সমস্ত পরস্মৈপদী ধাতুগুলিকে আত্মনেপদে পরিণত করা হয়। অনেকসময় ধাতুর পূর্বে কোনো উপসর্গ যুক্ত বলে পরস্মৈপদী ধাতু আত্মনেপদে পরিণত হয়।

আত্মনেপদবিধান দুটি উদাহরণের সাহায‍্যে বুঝিয়ে দাও

উদাহরণ:-

1) বি-পরাভ‍্যাং জেঃ –

বি এবং পরা উপসর্গ দুটি পূর্বে থাকলে পরস্মৈপদী জি ধাতুটি আত্মনেপদী হয়ে যায়।
যেমন:-

i) বি-জি+লট্ তে = বিজয়তে।মহারাজঃ শূদ্রকঃ বিজয়তে।
ii) পরা- জি+ লট্ তে = পরাজয়তেরাজা শত্রুন্ পরাজয়তে।


2) ভুজোঅনবনে (ভুজঃ+ অনবনে) :-

এখানে অবন শব্দটির অর্থ হল রক্ষা করা। আবার অনবনে শব্দটির দ্বারা রক্ষা করা ছাড়াও অন‍্য অর্থ বোঝাচ্ছে। রক্ষা করা বা পালন করা অর্থে ভুজ্ ধাতু পরস্মৈপদী হয়। কিন্তু ভোগ করা অর্থে,ভোজন করা অর্থে  ভুজ্ ধাতু আত্মনেপদী হয়।

যেমন-

রামঃ অন্নং ভুঙক্তে।(ভোজন করা অর্থে)- আত্মনেপদী।
রাজা রাজ‍্যং ভুনক্তি( পালন করা অর্থে)পরস্মৈপদী।
বালিকা সুখং ভুঙক্তে ( ভোগ করাঅর্থে )-আত্মনেপদী।

Leave a Comment