ঋগ্বেদের রচনাকাল

ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দাও।

ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ

উ:- ভারতীয় ঐতিহ্য অনুসারে বেদ অপৌরুষেয়, কল্পান্তে বেদ ভগবানের হৃদয়ে প্রচ্ছন্ন থাকে এবং কল্পনারম্ভে পুনঃরুদ্ভাসিত হয়-

যুগান্তে অন্তহির্তান বেদান্ সেতিহাসান্ মহর্ষয়ঃ
লেভিরে তপসা পূর্বমনুজ্ঞাতা স্বয়ম্ভুবা।।”

বেদ পরমপুরুষের নিঃশ্বসিত স্বরূপ-

” তস‍্য মহতো ভূতস‍্য নিঃশ্বসিতং যদেতদৃগ্বেদো যজুর্বেদঃ সামবেদঃ অথর্বাঙ্গিরসঃ।”

সৃষ্টি প্রারম্ভে কৃতধর্মা ঋষিই কেবল বেদমন্ত্র দর্শন করেন। সুতরাং কোন্ সময়ে ঋষিগন বৈদিক সূক্তগুলি রচনা করেছিলেন রচনা করেছিলেন তা সঠিকভাবে নির্নয় করা বর্তমানে সহজসাধ‍্য নয়। বিশেষতঃ আর্যগণ নিজেরাই বেদ কাল নির্ণয়ের পক্ষে সহায়ক কোনো তথ‍্য সংরক্ষণের ব‍্যাপারে বিন্দুমাত্র সচেষ্ট ছিলেন না। তথাপি ঐতিহাসিক দৃষ্টিতে অনেক পন্ডিতবর্গ ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে বিভিন্ন মো পোষণ করেছেন। অনেকে মনে করেন এই ঋগ্বেদ উৎপন্ন হয়েছিল যজ্ঞ থেকে-

” তস্মাৎ যজ্ঞাৎ সর্বহৃত ঋচঃ সামানি যঞ্জিরে।
ছন্দাংসি যঞ্জিরে তস্মাৎ যজুস্তস্মাদ্ জায়ত”।।

ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে পন্ডিতদের মধ্যে মতপার্থক‍্য

বেদের রচনাকাল নিয়ে পন্ডিতদের মধ্যে মতপার্থক‍্যের শেষ নেই। তবে কেউ কেউ মনে করেন বেদের রচনাকাল খ্রিস্টপূর্ব ১০০০ বছর, আর কেউ কেউ বলেন ৩০০০ থেকে ২৫০০ এর মধ্যে। ঐতিহাসিক ওয়েবার তার ‘History of Indian literature ‘ গন্থে বলেন- ঋগ্বেদের  নির্দিষ্ট কাল রচনা নির্ণয় করা দুঃসাধ্য ব্যাপার।

ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে পন্ডিতদের মতামত বিভাগ

বিভিন্ন পন্ডিতদের মতামত গুলিকে পাঁচ ভাগে ভাগ করে বেদের রচনাকাল নির্ণয়ে প্রয়াসী হয়েছেন, নিম্নে তা আলোচনা করা হল, –

  • (ক) ভাষাবিজ্ঞান তথা সাহিত্যের উপর আধারিত মত,
  • (খ) জ্যোতিষের উপর আধারিত মত,
  • (গ)  ঐতিহাসিক মত,
  • (ঘ)  প্রত্নতত্ত্বের উপর আধারিত মত,
  • (ঙ) ভূগোল অথবা ভূগর্ভ বিজ্ঞানের উপর আধারিত মত।

(ক) ভাষাবিজ্ঞান তথা সাহিত্যের উপর আধারিত মত:-

ম‍্যাক্সমুলারের মতানুসারে  বৌদ্ধ ধর্মের অভ‍্যুত্থান হয়েছিল শ্রৌত বা বৈদিক ধর্মের প্রতিবাদী হিসেবে। খ্রিস্টপূর্ব ৫০০ অব্দে বৌদ্ধ ধর্ম ভারতে বিস্তার লাভ করে। তার পূর্বে বৈদিক সাহিত্যের বিশেষত এর সংহিতা ও ব্রাহ্মণের অংশের রচনা ও সংকলন সম্পূর্ণ হয়েছিল। সুতরাং বেদের সংহিতা ও ব্রাহ্মণের রচনাকালের প্রারম্ভকে  তিনি খ্রিস্টপূর্ব ১২০০ থেকে ১০০০ অব্দের মধ্যে স্থাপন করেন।

অধ্যাপক সুনীতি কুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতে ঋকবেদের রচনাকাল ১০০০ থেকে ৯০০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দ।

জার্মান পন্ডিত ভিন্টার নিৎসের মতে ভাষাতত্ত্ব  ও ঐতিহাসিক তথ্যের উপর নির্ভর করে বলেন,  বৈদিক যুগের প্রারম্ভ অন্ততপক্ষে ২৫০০ থেকে ২০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে হতে পারে। ঋগ্বেদ যে ভাষাগত দিক থেকে কত প্রাচীন তা তিনি উদ্ধৃত luding এর একটি উক্তিতে স্পষ্ট বলেছেন-

‘ The Rigveda presuppose nothing of that which we know in India literature and whole of the Indian life presuppose the Veda’.

(খ) জ‍্যোতিষের উপর আধারিত মত:-

বেদাঙ্গ জ‍্যোতিষের উপর ভিত্তি করে ডঃ হাগ, আর্কবিশপ, প্রাট্ এবং হিবটনি বলেন বৈদিক সাহিত‍্য ২৪০০ খ্রিষ্টপূর্ব থেকে ২০০০ খ্রিষ্ট পূর্বাব্দের মধ‍্যে রচিত।
জ‍্যোতিষের সংক্রান্ত তথ‍্যের উপর গবেষনা করে বালগঙ্গাধর এবং জ‍্যাকবি বলেছেন সংহিতার যুগে বসন্তকালীন বিষুবসংক্রান্তি মৃগশিরা নক্ষত্রে হয়েছিল এবং গণনা করলে তার কাল ৪৫০০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দে পাওয়া যায়। অতএব, ব্রাহ্মণ, আরণ‍্যক ও উপনিষদের রচনাকাল ২৫০০ খ্রিস্টপূর্ব থেকে ১৪০০ খ্রিস্টপূর্ব ধরেছেন। ডঃ বুলার তা সমর্থন করেন।

     মহারাষ্ট্রের বিখ‍্যাত জ‍্যোতিষী শঙ্করবালকৃষ্ণ দীক্ষিত শতপথ ব্রাহ্মণের ২/১/২ তে কৃত্তিকাপুঞ্জের অবস্থানের  দ্বারা ঋগ্বেদের রচনাকাল ৩৫০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের পূর্ববর্তী বলেছেন।

(গ) ঐতিহাসিক মত:-

অধ‍্যাপক ম‍্যাকডোনালের মতে এশিয়া মাইনরে পাওয়া ‘ভোগান কোঈ’ শিলালেখার উপর ভিত্তি করে এবং ঋগ্বেদ ও আবেস্তার তুলনা করে এই সিদ্ধান্তে আসেন যে ঋগ্বেদ্ আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ১৩০০ বা ১৪০০ অব্দে উদ্ভূত হয়েছিল।

ঈশোপনিষদের তৃতীয় শ্লোকে যে ‘অসূর্যা’ শব্দটি আছে তা অ‍্যাসিরিয়া নামক দেশকে বোঝায়। এই তথ‍্যের উপর নির্ভর করে ভান্ডারকার বলেন ২৫০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের কাছাকাছি সময়ে ঋগ্বেদের উদ্ভব হয়।

(ঘ) প্রত্নতত্ত্বের উপর আধারিত মত:-

প্রত্নতত্ত্ব থেকে সংগৃহীত তথ‍্যের উপর নির্ভর করে পাশ্চাত‍্য বিদ্বান্ অধ‍্যাপক  পিগোট বলেন যে খ্রিঃ পূর্ব ২০০০ শতাব্দির পরবর্তী শতাব্দীতেও উত্তর – পশ্চিম থেকে ভারত একাধিক জাতি কর্তৃক আক্রান্ত হয়েছিল। ভারত ইউরোপীয় ভাষাভাষি মানুষও তাদের অন‍্যতম ছিল। অতএব, ঋগ্বেদের রচনাকাল খ্রিঃ পূঃ পঞ্চদশ শতাব্দী। Hugo Winkler নামক পণ্ডিত এশিয়া মাইনরের বোগাজকই নামক স্থানে কতকগুলি মৃত্তিকা নির্মিত লিপিফলক আবিস্কার করেন। এগুলি খ্রিস্টপূর্ব চতুর্দশক শতকের হিট্রাইট শাখার অন্তর্ভুক্ত। এথেকে প্রমাণিত হয় বৈদিক সভ‍্যতা সুদূর মালয়েশিয়া দেশেও প্রচলিত ছিল। বেদ এই যুগের বহু পূর্বে অর্থাৎ ২৫০০ থেকে ২০০০ অব্দের সমসাময়িক হতে পারে।

(ঙ) ভূগোল অথবা ভূগর্ভ বিজ্ঞানের উপর আধারিত মত:-

অধ‍্যাপক অবিনাশ চন্দ্র দাসের মতানুসারে ভূ-তত্ত্বের সাহায‍্যে গবেষনা করে বলেন যে, বেদের রচনাকাল ২৫,০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ। ভিন্টারনিৎস এই মত সমর্থন করেন না। আর জীবতত্ত্বানুসারে ১৬,০০০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দে এই পৃথিবীতে মানুষের সৃষ্টি হয়নি। ভিন্টারনিৎস তাই বলেছেন-

” In the older parts of the Regveda the indian nation appears to….become brachmaiged.

অধ‍্যাপক নারায়ণ রাও, ভবনরাও পারঙ্গির মতানুসারে ঋগ্বেদের রচনাকাল ৭০০০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দ।

ঋগ্বেদের রচনাকাল সম্পর্কে সিদ্ধান্ত

বিভিন্ন প্রাচ‍্য ও পাশ্চাত‍্য পণ্ডিত বেদের কাল সম্পর্কে নিশ্চিত সুদৃঢ় সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারোনি, কেউ কেউ খ্রিস্টপূর্ব ৬০০০ বছরের ঊর্ধ্বে গিয়েছেন, কেউ আবার ১০০০ খ্রিষ্টপূর্ব অবধি, নিম্নরের সীমারেখা টেনেছেন। এতৎ সত্ত্বেও কোনো প্রত‍্যক্ষ প্রমাণ আমাদের হস্তগত না হওয়া পর্যন্ত জার্মান পন্ডিত বিখ্যাত ভাষাতত্ত্ববিদ ভিন্টারনিৎস-এর মধ‍্যপন্থা অবলম্বন করে ১২০০ থেকে ১৫০০ খ্রিষ্ট পূর্বাব্দকেই বৈদিক সাহিত্যের সময়সীমা মেনে নেওয়া যুক্তিযুক্ত বলে মনে হয়।

Leave a Comment