ভর্তৃহরির রাবণবধ

ভর্তৃহরির রাবণবধ মহাকাব্যের পরিচয় সংক্ষিপ্ত আকারে আলোচনা করা হল ।

ভর্তৃহরির রাবণবধ


“Bhatti Whose epic is at once a poem and. illustration of rules of Grammar and Rhetorics.”

সময় ও কবিপরিচিতি

দ্বিতীয় শ্রীধর সেনের পৃষ্ঠপোষকতাতেই ভর্তৃহরি রাবণবধ রচনা করেছিলেন। তারা দুজনেই শৈব ছিলেন। বলভীর এই রাজার কাল বিচারে ভর্তৃহরিকে আমরা খ্রীষ্ট্রীয় ষষ্ঠ শতাব্দীর শেষভাগে স্থাপনা করতে পারি।

সর্গ

রাবণবধ নামান্তরে ভট্টিকাব‍্য ২২ টি সর্গে এবং এই ২২টি সর্গ আবার ৪টি কান্ডে বিভক্ত।

উৎস ও বিষয়বস্তু

সম্পূর্ণভাবে রামায়ণ অবলম্বনে রচিত এই কাব‍্যের বিষয়বস্তু নিম্নরূপ –


১. প্রকীর্ণ কান্ডঃ-

  • প্রথম সর্গ- রামের জন্ম।
  • ২য় সর্গ- রাম-সীতার বিবাহ।
  • ৫ম সর্গ – সীতাহরন।

২. অধিকার কান্ডঃ-

  • সপ্তম সর্গ – সীতার অনুসন্ধান।
  • অষ্টম সর্গ- অশোকবন ধ্বংস।

৩. প্রসন্ন কান্ডঃ-

  • ত্রয়োদশ সর্গ -সেতুবন্ধন।

৪. তিঙন্ত কান্ডঃ-

  • ১৪ সর্গ- কুম্ভকর্ণ বধ।
  • ১৭-১৯ সর্গ- রাবণবধ এবং বিভীষণের লঙ্কায় সিংহাসনে আরোহন।
  • ২০-২২ সর্গ- রাম-সীতার অযোধ‍্যায় প্রত‍্যাবর্তন।

উৎকর্ষ

মুখ‍্যতঃ ব‍্যাকরন শিক্ষাদানের জন‍্যই ভট্টিকাব‍্য রচিত।

  • ১. প্রকীর্ণ কান্ড – বিভিন্ন সূত্র।
  • ২. অধিকার কান্ড- অধিকার সূত্র।
  • ৩. প্রসন্ন কান্ড- অলংকার।
  • ৪. তিঙন্ত কান্ড – ল-কার ও অন‍্যান‍্য তিঙন্ত পদসমূহ।

কবির মতে, পন্ডিত ব‍্যাক্তিই এই কাব‍্যের মর্ম বুঝবেন। তবুও দ্বিতীয় সর্গের শরৎবর্ননের মত কিছু অসামান‍্য নৈসর্গিক সৌন্দর্য সম্বলিত রচনা আছে।

” দত্তাবধানং মধুলেহিগীতৌ
প্রশান্তচেষ্টং হরিণং জিঘাংসুঃ।
আকর্নয়ুন্নৎসুকহংসনাদান্
লক্ষ‍্যে সমাধিং ন দধে মৃগাধিত্।।”

Leave a Comment